আজ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুন, ২০২২ ইং

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ

 

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় মোবাইল দেওয়ার কথা বলে ঘরে আটকে ৬ বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে এক বখাটে কে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার নির্জন ঘরে তাকে নিয়ে নির্যাতন চালানোর পর আইনের আশ্রয় না নিতেও অবরুদ্ধ করে রাখে বখাটের স্বজনরা।

শুক্রবার রাতে শিশুকন্যার শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে বাবা-মা তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। শনিবার বিকেলে এ ঘটনায় অভিযুক্ত জুয়েল মজুমদার (১৮)কে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও শিশুকন্যার স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত ২৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামের এক দিনমজুরের ৬ বছর বয়সী এক শিশু কন্যা বাড়িতে খেলা করছিল। এ সময় পাশের বাড়ির রতীশ মজুমদারের ছেলে জুয়েল মজুমদার (১৮) ওই শিশুকন্যাকে মোবাইল দেওয়ার কথা বলে পাশের একটি নির্জন ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায়। তার কান্নায় আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে জুয়েল পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নির্যাতিতা শিশু কন্যার মা বাবা আইনের আশ্রয় নিতে চাইলে বখাটের স্বজনরা প্রলোভিত করে তাদের আটকে রাখে। শুক্রবার সকালে তারা বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে তাদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। শনিবার দুপুরে তার শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নির্যাতিতা শিশুকন্যার মামা বলেন, জুয়েল আমার ভাগনির সর্বনাশ করেছে। তারা আইনের আশ্রয় বা চিকিৎসা নিতেও দেয়নি।আমরা সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এসেছি। এখন বখাটে ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি।

বিশ্বম্ভরপুর থানার ওসি সুরঞ্জিত সরকার বলেন, একটি শিশু ধর্ষণের ঘটনার খবর পেয়েছি। তবে শিশুটির কেউ এখনো আমাদের এ বিষয়ে অভিযোগ করেনি এরপরও শনিবার খবর পেয়ে পুলিশসহ আমি ঘটনাস্থলে এসে অভিযুক্তকে আটক করে নিয়ে আসি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। শিশুটির স্বজনরা অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ