আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২২ ইং

অবৈধ পাথর ও  ৩টি নৌকাসহ ৯ জন আটক

 

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
তানভীর আহমেদঃ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় অবৈধ (মরা) পাথর বোঝাই তিনটি ইঞ্জিন চালিত মালবাহী(স্টিল বডি) নৌকাসহ ৯ জন চোরাকারবারিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৫ই আগষ্ট) দুপুরে, তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদ্মাসন সিংহ’র দিক নির্দেশনায় টেকেরঘাট ফাঁড়ি থানার ইনচার্জ এএসআই মোঃ আবু মুসার নেতৃত্বে সংঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপজেলার চাঁনপুর সীমান্ত এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে আমতৈল গ্রামের সম্মুখ থেকে (মরা) পাথর বোঝাই ৩(তিন)টি ইঞ্জিন চালিত মালবাহী (স্টিল বডি)নৌকাসহ ৯ জনকে আটক করা হয়।

পরে পাথর বোঝাই তিনটি (স্টিল বডি) নৌকাসহ ওই ৯ জন চোরা কারবারিকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরবর্তীতে মালবাহী তিনটি (স্টিল বডি) নৌকা জব্দ দেখিয়ে ওই চোরা কারবারিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং ১৮, ২৫/০৮/২০ ইং, ধারা- ২০১৫ সনের বালু মহল আইনের ৩৭৯, ৪১১ দণ্ডবিধি ধারায় মামলা রুজু করে বুধবার দুপুরে তাদেরকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন, উপজেলার সীমান্তবর্তী হলহলিয়া গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে মুক্তার মিয়া(৩৪), একই গ্রামের মৃত.আবুল কালামের ছেলে আজগর আলী(৩০), আব্দুস সালামের ছেলে রফিক মিয়া(৩০),নিরুল ইসলামের ছেলে নূর আলী(২৯), লায়েছ মিয়ার ছেলে জহির মিয়া(২৬), আব্দুল ওয়াদুদের ছেলে আশরাফুল মিয়া(১৯), তাহের আলীর ছেলে জিন্নাত আলী(২২), মৃত.আবু তালেব (মুন্সি)র ছেলে শাকির আহমদ(২২), মৃত.রহম আলীর ছেলে শাহ আলম(২৮)।

সম্প্রতি অতিবৃষ্টি পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যার পানিতে তাহিরপুর উপজেলার চাঁনপুর নয়াছড়া, বুরুঙ্গাছড়া, বড়ছড়া, লাকমা, চারাগাঁও, কলাগাঁও রন্দুছড়া সহ বিভিন্ন সীমান্তছড়া দিয়ে ভারতের মেঘালয় হতে ভেসে আসে কয়েক কোটি মূল্যের বালু, মড়া পাথর ও চুনাপাথর।
এসব বালু , পাথর ও চুনাপাথর খনিজ সম্পদ সীমান্ত জনপদের বিভিন্ন ফসলী জমিতে স্তূপীকৃত ভাবে পড়ে থাকায় স্থানীয় এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে জনস্বার্থে দ্রুত অপসারণের জন্য -নিলাম বিজ্ঞপ্তি আহবান দেন তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসন।

এরই প্রেক্ষিতে উপজেলার টেকেরঘাট নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কার্যালয়ে গত ২৭শে জুলাই এসব খনিজ সম্পদ উন্মুক্ত নিলামে বিক্রয় করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিলো। বাংলাদেশ খনিজ সম্পদ উন্নয়ন ব্যুরোর মহাপরিচালক(অতিরিক্ত সচিব) মো. জাফর উল্লাহ গত ২৩ জুলাই স্বাক্ষরিত এক স্বারকে এ উন্মুক্ত নিলামের আহবান করেছিলেন উপজেলা প্রশাসন।

কিন্তু ওই এলাকার স্থানীয় প্রভাবশালী, স্বার্থান্বেষী একটি কুচক্রী মহল এলাকাবাসীকে ভুলবাল বুঝিয়ে কৌশলে উন্মুক্ত নিলাম প্রত্যাখ্যান করে।
পরে প্রশাসনের চোখের আড়ালে, সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে দিনে-দুপুরে স্তূপীকৃত বালু, মরা পাথর ও চুনাপাথর অবাধে পাচার করে আসছিলো ওই চোরা কারবারি চক্রটি।

তাহিরপুর থানার ওসি মোঃ আতিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত ওই ৯ জনের বিরুদ্ধে ২০১৫ সনের বালু মহল আইনে মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ