আজ ২৫শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৮ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

টাঙ্গাইলে এক চা বিক্রেতার গল্প

খাঁন ইমরান 

টাঙ্গাইল জেলা জজ কোট চত্বরে চা বিক্রির গল্প দীর্ঘদিনের। যৌবন বয়স থেকেই চা বিক্রি করে আসছে সবুর ফকির। সবুর ফকিরের বয়স যখন ২৫ তখন থেকেই অভাব অনটনের সংসারের হাল ধরেন সবুর ফকির । এবং অবৈধ পথে উপার্জনের চেয়ে সৎ পথে উপার্জন করা ভালো সেই কথা চিন্তা করে নিজেই উদ্যোগে চা বিক্রির শুরু করে। টাঙ্গাইলের জজ কোট ঔকিল বার ভবনের দক্ষিণে সবুর ফকিরের চা দোকানে গতকাল(১৭ ফেব্রুয়ারী) সকালে এই প্রতিবেদককে গল্পের কথা বলেন। সেদিন থেকেই দীর্ঘ ৫০ বছর যাবৎ সে এখানে চা বিক্রি করে আসছে। চা খেতে দূর দূরত্ব থেকে পায়ে হেঁটে অনেকেই আড্ডা জমাতে আসেন। তিনি এই চা বিক্রি করে তার দুই মেয়ে এবং এক ছেলেকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন। এই চা-বিক্রেতা হলো টাঙ্গাইল সদরের কাইমারা গ্রামের কৃতি সন্তান সবুর ফকির তার বর্তমান বয়স ৭৫ হলেও তিনি চা খুবই সুস্বাদু ভাবে তৈরি করতে পারেন। সবুর ফকির জানান, পড়াশোনা করতে পারেনি অভাবের সংসারে। সৎ উপার্জনের ক্ষেত্রে নিজ উদ্যোগ নিয়ে চায়ের দোকান দিয়ে সুনামের সাথে আমি চা বিক্রি করে আসছি । আমার চা পান করে অনেকেই খুশি হয় এবং আমাকে বকশিস দিয়ে যায় । আমি এই চায়ের দোকান দিয়ে অনেক সুখী আছি এবং ভালো আছি কেননা সৎ পথে উপার্জন এর চাইতে আর কোনো ভালো উপার্জন থাকতে পারে না । আমি আমার ছেলে মেয়েকে মানুষের মত মানুষ করে গড়ে তুলতে পেরেছি । একজন চা পান করতে এসে জানান , এই দোকানে চা পান করতে আমি প্রায় ২০/২৫ মিনিটের পথ পায়ে হেঁটে এখানে প্রায় দিনই আসি। এই বৃদ্ধ বয়সেও সবুর ফকির সুস্থ এবং কোন রোগ তাকে ছুতে পারেনি। স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা হায়দার আলী খাঁন বলেন চাচার চা পান করতে সময় পেলেই ছুটে চলে আসি। তিনি আরও বলেন আমি এবং আমার বন্ধু বান্ধব নিয়ে এখানে এসে আড্ডা জমাই এই চা-বিক্রেতা সবুর ফকিরের দোকানে । কোট চত্বরে ডিউটিরত পুলিশ কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বলেন , আমি এখানে ডিউটিতে আসলে আগে সবুর চাচার চা দোকানে আসি চা পান করতে। বর্তমানে যুবকরা অনেকেই হতাস হয়ে যায়। তাদের কে তিনি পরামর্শ দেয় নিজ উদ্যােগে ছোট আকারে যে কোন ব্যবসা করার। সেই ব্যবসা থেকে একদিন অনেক বড় হওয়ার যেতে পারে সৎ উপার্জনের মাধ্যমে। সৎ উপার্জনের মাধ্যমে একমাত্র শান্তি আসতে পারে বলেও জানায় সবুর ফকির। সবুর ফকির দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন বাকী জীবনটা যেন সৎ পথে পার করতে পারেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ