আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ইং

ঘন কুয়াশায় প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা

মুকুল বোস বোয়ালমারী প্রতিনিধি :

শীত বাংলাদেশের প্রকৃতির এক অন্যতম ঋতু। শীতের আগমনী বার্তা প্রকৃতিতে এক ভিন্নরকম অনুভূতি আনে। ঋতু পরিক্রমায় এখন চলছে শরৎকাল।

এখনো শীত আসতে ২ মাস বাকি। তবুও বোয়ালমারীতে ঘন কুয়াশা দেখা দিয়েছে। সন্ধ্যায় হালকা গরম অনুভব হলেও মাঝ রাতের দিকে শীতের নতুন অনুভূতি। ভোর থেকেই চারপাশে কুয়াশা দেখা গেলেও, সূর্য উঠার পরপর কাটতে শুরু করে।

গাছের পাতায়, ঘাসের ডগায় ও সোনালি ধানের শীষে জমেছে শিশির কনা। পাশাপাশি বাতাসে রয়েছে হিমেল অনুভূতিও। প্রচলিত রীতি অনুযায়ী কার্তিক মাসে শীতের জন্ম হয়ে থাকে। তাই কুয়াশার সঙ্গে জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তার।

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে গত কয়েকদিন ধরেই শুরু হচ্ছে শীতের আমেজে। তবে দিনের বেলায় কিছুটা গরম অনুভূত হলেও সন্ধ্যা নামার পর একটু একটু করে কুয়াশা জড়িয়ে ধরছে প্রকৃতিকে। সকালেও দেখা গেছে সেটি। এতে হালকা শীতের অনুভূতি জাগিয়ে দিয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, দিনে কিছুটা গরমভাব থাকে। আবার মাঝরাতের দিকে বেশ ঠাণ্ডা পড়ে। ভোর থেকে আবার কুয়াশাও দেখা যাচ্ছে। এমন আবহাওয়ায় ঠাণ্ডা-কাঁশির প্রকোপ বাড়তে পারে।

সকালে হাঁটতে বের হওয়া মো. সজিব হাসান বলেন, গত কয়েক দিন ধরে রাতের বেলা শীত অনুভূত হচ্ছে। থাকছে কুয়াশাও। তবে সূর্য উঠার পর কুয়াশা আস্তে আস্তে কমে যায়।

বোয়ালমারী উপজেলার ময়না এলাকার স্কুল শিক্ষক মো বেলায়েত বারী বলেন, গত কয়েকদিন ধরে ভোর বেলায় কুয়াশা দেখা দেওয়ায় শীতশীত অনুভূত হচ্ছে।

তাছাড়া দিনে গরম লাগলে ও মাঝরাতে শীত করছে। সকাল বেলা হাঁটতে খুব ভাল লাগলেও কুয়াশা স্মরণ করিয়ে দেয় যে শীত এসে গেছে।

রিকশাচালক শামীম বলেন, গত কয়েকদিন ধরে সন্ধ্যার পর রাস্তায় কুয়াশা দেখা যায়। রাত যত বাড়ে কুয়াশা তত বেশি দেখা যায়। কুয়াশার কারণে ঠাণ্ডা লাগায় রাত ১১ টার পর আর বাইরে থাকি না। বাড়িতে চলে আসি।

এদিকে শীতের আগমনী বার্তায় স্থানীয় হাটবাজারগুলোতে শোভা পাচ্ছে নানা রকমের শীতের গরম পোশাক। ফুটপাত থেকে শুরু করে বিভিন্ন মার্কেটে শীতের পোশাক দোকানিরা তুলতে শুরু করেছেন।

ব্যবসায়ী আল-আমিন মিয়া বলেন, শীতের আগমনী বার্তায় গত বছরের বিভিন্ন শীতের পোশাক দোকানে উঠিয়েছি। শীতের পোশাক বিক্রি শুরু না হলেও বাচ্চাদের পোশাক কিছু বিক্রি হচ্ছে। আশা করছি আগামী সপ্তাহের মধ্যে বেচাকেনা শুরু হবে।

এদিকে সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন রুটে দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহনগুলোতে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা যায়।

বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা : মো. খালেদুর রহমান বলেন, অসময়ে ঘন কুয়াশায় বিভিন্ন রোগের প্রকোপ দেখা দিতে পারে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ