আজ ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

সুনামগঞ্জের বাউল সাধক রণেশ ঠাকুরের পাশে দিরাই উপজেলা প্রশাসন

 

আব্দুল জলিল মিয়া বিশেষ প্রতিনিধি:

গত রবিবার দিবাগত রাত ১ টায় অর্থাৎ ১৮/৫/২০২০ ইং তারিখে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উজানধল গ্রামের বাউল রণেশ ঠাকুরের বাড়ীর আসর ঘরে আগুন লেগে ঘরটি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়।

উজানধল গ্রামের মোহন চক্রবর্তী কীর্ত্তনীয়ার দুই ছেলে রুহী ঠাকুর এবং বাউল রণেশ ঠাকুর বাউল সম্রাট শাহ আব্দুল করিমের অন্যতম একনিষ্ঠ অনুসারী।

৫৫ বছর বয়সী বাউল রণেশ ঠাকুরের বাড়ী শাহ আব্দুল করিমের বাড়ি সংলগ্ন। করোনাপূর্ব কালীন সময়ে তার আসর ঘরে নিয়মিত বাউল সঙ্গীত চর্চা হত।

আসর ঘরটিতে তার দোল, ছইট্টা, দোতারা, হারমুনিয়ামসহ অন্যান্য যন্ত্রপাতি এবং সঙ্গীতের পান্ডুলিপি সমূহ ছিল।

রবিবারে রাত দেড়টার দিকে প্রতিবেশীর চিৎকারে বাড়ীর এবং আশেপাশের মানুষজন সজাগ হয়ে দেখেন যে আসর ঘরটি পুড়ে যাচ্ছে।

অতি দ্রুত আগুনের বিস্তার দেখে ধারণা করা হচ্ছে যে এই অগ্নিকাণ্ড ষড়যন্ত্রমূলক। বাঊল রণেশ ঠাকুর কাউকে সন্দেহ করেননি।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে জেলা প্রশাসক সুনামগঞ্জের নির্দেশে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সফিউল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং তাৎক্ষনিকভাবে রণেশ ঠাকুরকে নগদ ২০,০০০/= টাকা অর্থ-সহায়তা প্রদান করেন।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন হতে বাউল রণেশ ঠাকুরের ঘর পুনরায় নির্মান করে দেয়া হবে এবং তাকে বাদ্যযন্ত্র উপহার দেয়া হবে। রণেশ ঠাকুরের ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ী ব্যক্তিদের সুষ্ঠু সনাক্তকরণের জন্য জেলা প্রশাসক পুলিশ সুপার সুনামগঞ্জকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ