আজ ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

রাষ্ট্রীয়সহায়তা বা ত্রাণভিক্ষা চাই না গণমাধ্যমকর্মীর পাশে দাঁড়ান হে অভিভাবকগণ

আফজাল বারীঃ

 

গণমাধ্যমের প্রতি এখনো কেন যে সরকার প্রধানের মন টলে না । আল্লাহ তাদের দিলবরফ গলিয়ে দাও। ৬ সহকর্মী করোনায় আক্রান্ত। লাখো সহকর্মীর মধ্যে অন্যদের আভ্যন্তরিন অবস্থা অজানা। রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধানদের দৃষ্টি কামনা করছি। এই সময়ে কথা না বলে মৃত্যুর পর বিধবা স্ত্রী আর এতিম সন্তানদের হাতে চেক ধরিয়ে ফটো সেশনের দরকার নাই। বরং সংবাদ প্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মরতদের বকেয়া বেতন, নিরাপত্তাসহ চতুর্থ স্তম্ভের জন্য কিছু করার থাকে করুন। এটা ভিক্ষা নয় আমার অধিকার। নিশ্চিত করবেন বলেই আপনি ওই পদে বসেছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পুলিশ নিয়ে ভাবছেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী চিকিৎসকদের নিয়ে, শিল্পমন্ত্রী বলছেন শিল্পপতিদের কথা, কৃষিমন্ত্রীর জোরালো দাবি কৃষককুল নিয়ে, ধর্মমন্ত্রী ফরমান দিচ্ছেন মসজিদ-মন্দির প্যাগোড়ায় প্রার্থনার, বাণিজ্যমন্ত্রী ব্যবসায়িদের সুবিধার জন্য লড়াই করছেন। লাখো পোষাক শ্রমিককে ঢাকায় আনার মতো বদসাহস জুগিয়েছেন গার্মেন্টস মালিকদের। আমাদেরও দুইজন মন্ত্রীসহ অর্ধ ডজনখানেক প্রতিষ্ঠান আছে তাদের কর্তারা কী করছেন তা তো ৭৩ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজেই দেখেছি। ওই বরাদ্দকে ১৮ কোটি দিয়ে ৭৩ হাজার কোটিকে ভাগ দিলেও ৪হাজার ৪১ টাকার বেশি পাবার কথা। তা না-ইবা দিলেন । অন্ত:ত মালিকদের কাছ থেকে কাজের নিরাপত্তা এবং আগাম নয় বকেয়াটুকু আদায় করার সখ্যমতা দেখিয়ে উদ্ধার করুন মহোদয়। আফজাল বারী ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক (ডিআরইউ) ।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ