আজ ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শেরপুরে হাট-বাজারে করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্য সচেতনতা ক্যাম্পেইন

শেরপুর প্রতিনিধিঃ

‘করোনার এই অতিমারিকালে মাস্ক পড়ি, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি, শারিরীক দুরত্ব বজায় রাখি, নিজে বাঁচি, সবাইকে নিরাপদ রাখি’। এ শ্লোগানে শেরপুরে করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন হাট-বাজারে স্বাস্থ্য সচেতনতা ক্যাম্পেইন করেছে নাগরিক প্ল্যাটফরম জনউদ্যোগ শেরপুর। স্থানীয় যুব স্বেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার হাটের দিনে শহরের গুরুত্বপূর্ণ নয়ানী বাজার, স্টেডিয়াম বাজার, নবীনগর হাজীর বাজার, সদরের পাকুড়িয়া মাজার শরীফ বাজার ও গাজীরখামার বাজারে এ প্রচারণা চালানো হয়। ডিসি গেইটের সামনে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডিআইও-ওয়ান মো. আবুল বাশার মিয়া। এসময় শিক্ষাবিদ অধ্যাপক শিব শংকর কারুয়া, প্রেসক্লাব সভাপতি শরিফুর রহমান, জেলা উদীচী সভাপতি তপন সারোয়ার, শিক্ষক-সংস্কৃতি কর্মী এসএম আবু হান্নান, সাংবাদিক সঞ্জিব চন্দ বিল্টু, যুব নেতা শুভংকার সাহা, যুব নেত্রী তিথী নন্দি বক্তব্য রাখেন। স্থানীয় বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এতে উপস্থিত ছিলেন। সদরের গাজীরখামার বাজারে র্কসূচির উদ্বোধন করেন ইউপি চেয়ারম্যান আওলাদুল ইসলাম। নবীনগর বাজারে শিক্ষক এসএম আবু হান্নান এবং স্টেডিয়াম বাজারে ফুটবল কোচ গোলাম শাহরিয়ার রবীন কর্মসূচির সুচনা করেন। ক্যাম্পেইন চলাকালে পথচারি ও বাজারের লোকজনের মাঝে ২ হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়। জনউদ্যোগ শেরপুরের সদস্য সচিব হাকিম বাবুল জানান, ইয়ুথ স্কোয়াডের সদস্যরা ৫টি পৃথক টিমে ভাগ হয়ে এসব বাজারগুলোতে হ্যান্ডমাইকে করোনার উর্ধ্বমুখি সংক্রমনের ভয়াবহতা তুলে ধরে সকলকে সচেতন ও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান। একইসাথে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা, মাস্ক ব্যবহার করা, সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা, অযথা বাইরে ঘুরাফেরা না করা, নিয়মিত হাত পরিষ্কার করা, হাঁচি-কাশির শিষ্টাচার মেনে চলা, ঘরে অবস্থান করার প্রচারণা চালান। সেইসাথে উপসর্গ দেখা দিলে সরকারি হাসপাতালে বিনামুল্যে করোনা পরীক্ষার সুযোগ এবং করোনা থেকে সুরক্ষায় টিকা গ্রহণে সাধারণ মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেন। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আইইডি (ইনস্টিটিউট ফর এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট), নারী রক্তদান সংস্থা, শেরপুর ডিস্ট্রিক্ট ডিবেট ফেডারেশন (এসডিডিএফ), অদম্য শেরপুর, আবির্ভাব, বর্মণ ছাত্র পরিষদ, ইয়ুথ অ্যাজ চেঞ্জ এজেন্ট ফর সোশাল কোহেশন, রজীবা (রক্তদিন জীবন বাঁচান), ছাত্র ও যুব ঐক্য পরিষদ সহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এ ক্যাম্পেইন বাস্তবায়নে সহযোগিতা করেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ