আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ ইং

রামায়ণ থেকে আমাদের শিক্ষণীয় বিষয়

রনজিত কুমার পাল( বাবু)নিজস্ব প্রতিবেদক :

আমরা অনেকেই রামায়ণ পড়ি। এই মহাকাব্যটি আমাদের অনেক অনেক শিক্ষা দেয়, যা আমাদের জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। রামায়ণ থেকে আমরা কী কী শিক্ষা পেতে পারি, তার সংক্ষেপে তুলে ধরলাম–

১.সত্যের_জয়– রামায়ণের শিক্ষার মূল কথা হল মিথ্যা যতই শক্তিশালী হোক, সত্য দ্বারা তা সবর্দাই পরাজিত হবে। সবসময়ই সত্যের জয় হয়। একজন ব্যক্তির সর্বদা একটি ভাল মূল্যবোধ এবং মহৎ হৃদয় থাকা উচিত, যার দ্বারা সে সমস্ত কিছু জয় করতে সক্ষম হবে। এভাবেই মহৎ হৃদয়ের রাম রাবণকে পরাজিত করেছিলেন।
শিক্ষনীয়: একমাত্র মূল্যবোধ ও সত্যাশ্রয়ী হয়েই জগৎ জয় করা যায়।

২.সবার_সাথে_সমান_আচরণ_করা– শ্রীরাম যেকোন বয়স্ক ব্যক্তি বা প্রবীণ, কিংবা দরিদ্র বা ধনী সবার সাথে সমান আচরণ করতেন। এভাবেই তিনি সকলের শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা অর্জন করেছিলেন। আমাদের উচিত সকলের সাথে সমান আচরণ করা।
এক ঋষিকন্যা একবার তাঁকে কিছু ফল উপহার দিয়েছিলেন, তখন তিনি দ্বিতীয় কোন চিন্তা না করেই তা খেয়েছিলেন। তিনি সর্বদা মানুষের প্রতি বিনয়ী ও সদয় ছিলেন।

শিক্ষনীয়: ভগবান রামের এই গুণটি আমাদের সকলের মধ্যেই থাকা উচিত। সকলের থেকে ভালবাসা এবং শ্রদ্ধা পেতে হলে প্রত্যেকের সাথে সমান আচরণ করা এবং সদয় ও বিনয়ী হওয়া উচিত।

৩.দায়িত্বের_প্রতি_গভীর_প্রতিশ্রুতিবদ্ধ– মাতা সীতার স্বামী হওয়া ছাড়াও রাম ছিলেন অযোধ্যার রাজা। আর রাজার কর্তব্য হল তাঁর প্রজাদের সুখী রাখা। যখন প্রজারা সীতার পবিত্রতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল, তখন তিনি সীতাকে ত্যাগ করেছিলেন। যদিও স্বামী হিসাবে স্ত্রীর প্রতি তাঁর কর্তব্য ছিলো। তবে একজন রাজা হিসাবে তাঁর ব্যক্তিগত বিষয়গুলির আগে তাঁর প্রজাদের ইচ্ছার কথা ভাবতে হয়েছিল।

শিক্ষণীয়: আমাদেরও ব্যক্তিগত ইচ্ছা অপেক্ষা দায়িত্বের প্রতি বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত।

৪.ন্যায়ের_পথ_বেছে_নেওয়া– রাবণের ছোট ভাই বিভীষণ রামের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তাঁর ভাইবোনকে সমর্থন না করে তিনি রামের পক্ষ বেছে নিয়েছিলেন। কেননা, তিনি জানতেন যে তাঁর ভাই অন্যায় করেছে এবং এজন্যই তিনি ন্যায়ের পথ বেছে নিয়েছিলেন।

শিক্ষণীয়: জীবনেও আমাদের অনেক সমস্যা আসতে পারে কিন্তু আমাদের উচিত সর্বদা ন্যায়ের পথ বেছে নেওয়া।

৫.চকচক_করলেই_সোনা_হয়_না– একটি হরিণের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে সীতা রামকে সেই হরিণ নিয়ে আসতে বলেছিলেন। কিন্তু আসলে সেই হরিণটি ছিল পশুরূপে রাবনের সহযোগী ছদ্মবেশে মারীচ। রাম এই হরিণকে আনতে যাওয়ার পর রাবন সীতাকে হরণ করে নিয়ে যায়।

শিক্ষণীয়: “কোন জিনিসেরই বাইরের সৌন্দর্য দেখেই মূল্যায়ন করা আমাদের উচিত নয়”।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ