আজ ১৪ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং

সুনামগঞ্জে শিশু তুহিন হত্যায় বাবা ও চাচার মৃত্যুদণ্ড

আব্দুল জলিল মিয়া 

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে নৃশংস কায়দায় পাঁচ বছরের শিশু তুহিন মিয়াকে হত্যার দায়ে তার বাবা আবদুল বাছির (৪০) ও চাচা নাসির উদ্দিনকে (৩৫) মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার সকালে সুনামগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ওয়াহিদুজ্জামান শিকদার এ রায় ঘোষণা করেন।

অভিযোগ প্রমাণিত না হ্ওয়ায় দুইজনকে খালাস দেওয়া হয়। তারা হলেন- আবদুল মছব্বির (৪৫) ও জমসেদ আলী (৬০)।

তুহিন হত্যায় জড়িত অভিযোগে তার বাবা-চাচাসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে গত ৩০ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। এরপর আদালতে অভিযোগ গঠন হয় ৭ জানুয়ারি।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ২৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়। পরে মামলার রায়ের জন্য ১৬ মার্চ তারিখ ধার্য করেন বিচারক। এক আসামি শিশু হওয়ায় তার বিচার হয় শিশু আদালতে।

গত বছরের ১৪ অক্টোবর সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কেজাউরা গ্রামে নৃশংসভাবে হত্যার শিকার হয় শিশু তুহিন মিয়া।

পরদিন সকালে বাড়ির পাশের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় তুহিনের রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়। তার গলা, দুই কান ও গোপনাঙ্গ কাটা ছিল। পেটে বিদ্ধ ছিল দুটি বড় ছুরি।

এ ঘটনায় তুহিনের মা মনিরা বেগম বাদী হয়ে পরদিন অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করে দিরাই থানায় মামলা করেন।

এ মামলায় পুলিশ তুহিনের বাবা আবদুল বাছির, চাচা নাসির উদ্দিন, আবদুল মছব্বির ও জমসেদ আলী এবং কিশোর এক চাচাতো ভাইকে গ্রেপ্তার করে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ