আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২১ ইং

বইপ্রেমী হারুন-অর-রশীদ যেন আরেক পলান সরকার

 

হাসনাত কাইয়ূম,বিশেষ প্রতিনিধি :

প্রয়াত বইপ্রেমী পলান সরকারের নাম শুনেনি, অনন্তঃ বইয়ের সাথে সম্পৃক্ত এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। বইয়ের কথা ছড়িয়ে দিতে আজ পলান সরকার নেই, রয়ে গেছে তাঁর কাজ। কিন্তু বইপ্রমী হারুন-অর-রশীদ যেন এ যুগের আরেক পলান সরকার হয়ে আবির্ভূত হয়েছে।

ইউটিউব, ফেইসবুক আর অন্যান্য অনলাইন সামাজিক মাধ্যমের দাপটে শিশু কিশোর, তরুণ তরুণী থেকে শুরু করে আবাল বৃদ্ধা বনিতারা যখন বুঁদ হয়ে থাকেন ভার্চুয়াল দুনিয়ার নেশায়, একজন বইপ্রেমী হারুন তখন বই হাতে ছুটে চলেছেন পাড়া মহল্লা থেকে শুরু করে গ্রামের পর গ্রাম। সকল শ্রেণী পেশা নির্বিশেষে সবার হাতে পৌঁছে দিচ্ছেন বই। আপাতঃ দৃষ্টিতে শুনতে অবিশ্বাস্য মনে হলেও বাস্তবিক অর্থে সত্যিই এটি অবিনব উপায়ে বইয়ের কথা ছড়িয়ে দিতে ব্যস্ত একজন বইপ্রেমীর সত্যিকারের গল্প।
বইপ্রেমী এই হারুন-অর-রশীদের জন্ম কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার। তরুণ সমাজকে বদলে দিতে অবিরত কাজ করে যাচ্ছেন বই নিয়ে। মাদকাসক্ত তরুণদের মাদকের বদলে তুলে দিচ্ছেন বই। অবিনব পন্থায় মাদকাসক্ত তরণদের বইয়ের দিকে ফিরিয়ে আনছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন বই। পড়া শেষ হলে এক সপ্তাহ পরে নতুন বই দিয়ে পুরনো বই ফিরিয়ে আনছেন। সমাজের সকল শ্রেণীর সকল পেশার মানুষের দ্বারে দ্বারে এভাবে বইয়ের কথা ছড়িয়ে দেয়ার কাজটা তিনি করছেন গত ১০ বছর ধরে। অনলাইনের আসক্তি কমিয়ে বিশাল এই তরুণদের আসক্ত করছেন বইয়ের প্রতি। সভ্যতার আলো ছড়িয়ে দিতে এই বইপ্রেমীর অগ্রযাত্রা যেন দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে সংস্কারের মশাল বহন করে।

অনলাইনেও বইয়ের কথা ছড়িয়ে দিতে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন এই তরুণ বইপ্রেমী। গত ১০ বছর যাবৎ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি চালিয়ে যাচ্ছেন বইয়ের প্রচারণা। দেশী বিদেশী বিভিন্ন বইয়ের রিভিউ করে ইতোমধ্যে অনলাইনে তিনি ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি করেছেন। তার লেখা রিভিউ পড়ে অনেকেই আসক্ত হচ্ছেন বই পড়ার দিকে। তিনি স্বপ্ন দেখেন, একটা সভ্য-শিক্ষিত তরুণ সমাজের। সভ্যতা বিনির্মাণে এই বইপ্রেমীর অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক এই প্রত্যাশা করছি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ