আজ ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

ইদুল আযহার শুভেচ্ছা জানান  সাংবাদিক হাসান  

নিজস্ব প্রতিবেদক :  

ঈদ মানে খুশি,  ঈদ মানে আনন্দ,  ঈদ মানে সকল দুঃখ ভুলে নতুন করে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরনা।

ঈদ মোবারক, সকলকে পবিত্র ইদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা৷ আপনি ও আপনার পরিজনরা আনন্দের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করুন, সে কামনা করছি৷

আমি সাংবাদিক মোহাম্মদ হাসান
করোনোর এই ক্লান্তিলগ্নে দেশের সর্বস্তরের জনগণকে  জানাই পবিত্র ইদ-উল-আযাহার  শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ।

মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযাহা। ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে আনন্দ, খুশি বয়ে আনুক সকল মানুষের মনে।

এ আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে সবার মাঝে, গ্রামগঞ্জে, সারা বাংলায়, সারা বিশ্বে। শহরবাসী মানুষ শিকড়ের টানে ফিরে আসে আপনজনের কাছে, মিলিত হয় আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে। এ দিন সব শ্রেণি পেশার মানুষ এক কাতারে শামিল হন এবং ঈদের আনন্দকে ভাগাভাগি করে নেন।

তবে এবার শহর থেকে আসা সকলের প্রতি অনুরোধ করে বলি, আপনারা করোনা ভাইরাসের হাত থেকে আপনার প্রিয়জনকে বাঁচাতে সামাজিক দুরত্ব ও হোম কোয়ারান্টাইনে থাকুন। আপনি সুস্থ থাকলে, সুস্থ থাকবে আপনার পরিবার, সুস্থ থাকবে আমাদের ভালোবাসার স্থান।

পশু কেনা আর যত্ন-আত্তিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন অনেকে। ঈদুল আযহার অন্যতম অনুষঙ্গ হলো পশু কোরবানি। এ সময় ঢাকাসহ সারা দেশে লাখ লাখ পশু কোরবানি দেওয়া হয়। কিন্তু প্রতি বছরই সঠিক ব্যবস্থাপনা ও সচেতনতার অভাবে দেশের বিভিন্ন জায়গায় কোরবানির পশুর রক্ত ও উচ্ছিষ্টাংশে মারাত্মক পরিবেশ দূষণের সৃষ্টি হয়। আর বর্জ্য থেকে রোগবালাই ছড়ানোর আশঙ্কা থাকে। এ জন্য কোরবানির পর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে আমাদের অবশ্যই নজর দিতে হবে।

বিশেষ করে ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় যদি কোরবানির পশুর বর্জ্য যথাযথভাবে পরিষ্কার করা না হয়, তাহলে পরিবেশ দূষণের সৃষ্টি হবে। এ জন্য কোরবানির পশুর রক্ত, হাড়, নাড়িভুঁড়ি, মল ইত্যাদি যথাযথভাবে পরিষ্কার করা দরকার এবং তা যেন পরিবেশকে অস্বাস্থ্যকর করে না তোলে সেদিকে সবার দৃষ্টি রাখা উচিত।

সবাইকে আবারও অন্তরের অন্তস্থল থেকে ঈদের শুভেচ্ছা।
ঈদ মোবারক।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ