আজ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সাভারের জিনজিরা এলাকায় নাট্যোৎসব।

এইচ এম হুমায়ুন কবির (বিশেষ প্রতিনিধি)

বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং স্বাধীনতা সংগ্রামের উজ্জ্বল নক্ষত্র এবং বাংলাদেশ সৃষ্টির কারিগর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের লক্ষ্যে চলছে দেশব্যাপী ক্ষণ গণনা উৎসব। মুজিববর্ষে দেশের উন্নয়ন তথা সাধারণ মানুষের কল্যাণের লক্ষ্যে সরকারিভাবে হাতে নেয়া হয়েছে বিভিন্ন প্রকল্প, আর বিনোদনের জন্যেও রয়েছে যথেষ্ট পরিকল্পনা। যার ধারাবাহিকতায় সাভারের জিনজিরা এলাকায় মঞ্চস্থ হয়েছে ভিখারির আর্তনাদ নামে জনপ্রিয় একটি নাটক। এন আর নাট্যগোষ্ঠীর ব্যানারে এই নাটকটি মঞ্চস্থ করতে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছেন বিরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজন ও সাভার সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোঃ সোহেল রানা এবং জিনজিরা ও কলমা এলাকার সংস্কৃতিমনা ব্যক্তিবর্গ ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সুজন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাভার সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ সোহেল রানা।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সাভার ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ আরিফ হোসেন,বিরুলিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত আসনের মহিলা মেম্বার রাজিয়া সুলতানা ও নুরতাজ বেগম, সাভার ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ আবুল হোসেন,সাভার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ, মোঃ শহিদুল ইসলাম (সাভার থানা যুবলীগ) মোঃ কামাল হোসেন সহ আরো অনেকে।

এ সময় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাইদুর রহমান সুজন বলেন এ ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নিঃসন্দেহে মানুষের হৃদয়ের খোরাক হিসেবে বিবেচিত। যেকোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তার সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিশেষ অতিথি হাজী মোঃ সোহেল রানা বলেন মুজিব শতবর্ষকে সামনে রেখে এ ধরনের একটি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পেরে ভালো লেগেছে। এলাকার সাধারন মানুষের বিনোদনের লক্ষে সর্বস্তরের মানুষের অংশ গ্রহণে এতো সুন্দর একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করায় তিনি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান। সোহেল তার বক্তব্যে পুরনো দিনের এই সংস্কৃতিকে পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্যে শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণভাবে সুন্দর ভাবে নাটকটি মঞ্চস্থ করে এলাকার সংস্কৃতিমনা মানুষদের আনন্দ দেয়ায় এন আর নাট্যগোষ্ঠীর প্রতি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনে যেকোনো ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন । একটি সুন্দর ও কলহ মুক্ত সমাজ বিনির্মাণে শিল্পচর্চা সঙ্গীত চর্চা কিংবা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নিঃসন্দেহে ভূমিকা রাখে বলে মন্তব্য করেন সাভার সদর ইউনিয়নের এই সফল চেয়ারম্যান।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ