আজ ২৭শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই অক্টোবর, ২০২১ ইং

সাভারে গৃহবধূর হত্যা রহস্য উদঘাটন, গ্রেপ্তার ৩

বিশেষ প্রতিনিধি : আব্দুস সালাম (রুবেল)

ঢাকার সাভারে টুকটুকি(২০) হত্যাকাণ্ডের মুলহোতাসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (৫ জানুয়ারী) দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়।
শুক্রবার গভীর রাতে প্রথমে জনি ও সেলিমকে জামসিং এবং পরে কলমা থেকে জুয়েলকে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, সাভারের জামসিং এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে জনী (২৪), শুকুর আলীর ছেলে সেলিম (২২) ও নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ থানার লক্ষীবরদী গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে জুয়েল (২৮)।

পুলিশ জানায়, গত (২৫ ডিসেম্বর) টকটুকিকে বাড়ি থেকে উত্তর জামসিং এলাকায় ডেকে নেয় জনি। পরে তাকে তিন জন হত্যা করে। হত্যার পর লাশ প্রথমে জনির বাড়িতে ওয়ার ড্রপে রেখে দেয় এবং লাশ গুম করার জন্য সুযোগ খুজতে থাকে। ২৭ ডিসেম্বর সুযোগ বুঝে গভীর রাতে টুকটুকির লাশ জামসিং এলাকায় ফেলে রেখে যায়। ২৮ তারিখ সকালে স্থানীয়রা পুলিশ কে সংবাদ দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় পুলিশ। ২৮শে ডিসেম্বর সাভার মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে সাভারের উত্তর জামসিং এলাকার মনতাজের বাড়ির পিছন থেকে অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএফএম সায়েদ বলেন হত্যা মামলাটি তদন্তকালে পুলিশ নারীর পরিচয় পায়। নিহত টুকটুকি ও তার স্বামী মিল্লাতসহ সাভার বনপুকুর এলাকায় ভাড়া থাকতো। মিল্লাত সাভারে ফুটে ব্যবসা করে তারা বসবাস করতো। টুকটুকির সাথে জনির পরিচয় সূত্রে জনি ডেকে নিয়ে টুকটুকিকে হত্যা করে। সাভার মডেল থানা পুলিশ জানায় ৩ আসামীকে আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করবে ঘাতকরা।

ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হাসান সরদার জানায় আলোচিত হত্যা রহস্য উদঘাটন ও নারীর পরিচয় সনাক্ত জন্য তিনি কঠোর নির্দেশ প্রধান করে ছিলেন। সেই ধারাবাহিকতায় নারীর মোবাইল ট্রেকিং করে আসামীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ