আজ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২১ ইং

মানবতার দেয়াল দুই তরুনের স্বপ্ন থেকে শত তরুণের স্বপ্নে পরিনত

হাসিবুল হাসান ইমু

“শীত” শব্দটা অনেকের কাছে অনেক আনন্দের।শীত মানের হরেক রকমের পিঠা,শীত মানেই কক্সবাজার ঘুড়তে যাওয়া,শীত মানেই খেজুরের রস।
কিন্তু এই শীত শব্দটাই যেনো অনেকের কাছে নির্ঘুম একটি রাত,যে রাতের সঙ্গী রাস্তার কিছু কুকুর আর দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকা পলিথিন ও রাস্তায় পরে থাকা কাগজ।
কিন্তু এই বিষয়টাই যেনো কাঁদিয়েছিল সদ্য কলেজের গন্ডি পেরোনো প্রিন্স আর তুরাগ নামের দুই তরুনকে। তারা চিন্তা করতে থাকে কিছু করার।হাতে টাকা বলতে খুব সামান্য কিছু।এমন কিছু করতে চায় তারা যাতে টনক নড়ে সবার,সবাই যেনো বাড়িয়ে দেয় তাদের সাহায্যের হাত। আর সেই ভাবনা এবং ফেসবুকের একটি তথ্যের মাধমে তারা বের করে এক অভিনব উপায়।
তারা প্রতিষ্ঠা করে ভালবাসার দেয়াল নামের একটি কাপড় বিতরন ও সংগ্রহশালা।তাদের কাজটাও ছিল খুব মজার ও ভিন্নধর্মী,যেটার মাধ্যমে খুব কম সময়ে অনেক বড় রকমের সারা পেয়েছিল তারা।ছবিঘর সংগঠনের সাহায্যে সাভার প্রথম আলোর সাংবাদিক অরুপ রায় ও সাভারের ছাত্র সমাজকে সাথে নিয়ে সাভার সিটি সেন্টারের সামনে তারা প্রথম অস্থায়ী একটি দেয়াল স্থাপন করে যেখানে লেখা ছিল “ভালবাসার দেয়াল”।দুটি নির্দিষ্ট যায়গা ছিল কাপড় সংগ্রহ ও বিতনের জন্য। যে কেউ চাইলেই তাদের অপ্রয়োজনীয় কাপড় রেখে যেতো সেখানে আর যার প্রয়োজন হতো তারা সেখান থেকে কাপড় নিয়ে যেতো।
তাদের এই উদ্যোগকে যেমন সাধুবাদ জানিয়ে ছিলো অনেকে। তেমনি অনেকের অবহেলারও শিকার হতে হয়েছে তাদের।
দুই দিনের মাথায় তাদের এই দেয়ালকে উচ্ছেদ করে দেয় সিটি সেন্টার কর্তৃপক্ষ।আরো বেশ কিছু দেয়াল স্থাপন করা হয়েছিল সাভারের বিভিন্ন এলাকায়,সেগুলোও উচ্ছেদ করে দেওয়া হয়।
কিন্তু তাদের সেই ভাঙা স্বপ্ন আবার সত্যি হয়েছে। তারা যেন অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন আরো শত যুবককের। তাদের অনুপ্রেরণাতেই আজ এক বছর পর সাভারে স্থাপিত হয়েছে শত মানবতার দেয়াল।
এই ছোট দুই তরুনের স্বপ্ন যেনো এখন শত শত তরুণের স্বপ্ন।ভালবাসা ও বিনম্র শ্রদ্ধা এই এই দুই তরুনের জন্য।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ