আজ ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

চাঁদপুরে করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য  ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ

 

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

নোবেল করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য চাঁদপুরে একযোগে ১৪জন ডাক্তার (সহকারী সার্জন) ও ১১ জন নার্স নিয়োগ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
তারা সবাই চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করবেন। এর মধ্যে ডাক্তাররা সবাই গতকাল ১২ই মে মঙ্গলবার চাঁদপুর সিভিল সার্জন অফিসে যোগদান করছেন।

আগামী সোমবার চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালে কাজ শুরুর কথা রয়েছে তাদের। নার্সরা আজ ১৩ মে বুধবার যোগদানের কথা রয়েছে।

আগামী শনি-রোববার তাদের বিশেষ সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। দেশে করোনার সংক্রমণের পর চাঁদপুর সদর হাসপাতাল তথা স্বাস্থ্য বিভাগে এটাই প্রথম চিকিৎসাকর্মী পদায়ন। এতে করোনা চিকিৎসায় নতুন গতির সঞ্চার হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে,
সরকার সম্প্রতি জরুরী ভিত্তিতে যে ২ হাজার ডাক্তার ও ৫ সহ্রাধিক নার্স নিয়োগ করেছে তাদের মধ্য থেকে চাঁদপুর জেলার জন্য ১৪জন ডাক্তার ও ১১জন নার্সকে পদায়ন করা হয়েছে।

নতুন পদায়নকৃত ডাক্তার, নার্স সবাই চাঁদপুর সদর হাসপাতালে দায়িত্ব পালন করবেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বন্টন করে দেওয়া রুটিন অনুযায়ী এসব ডাক্তার মূলত করোনায় আক্রান্ত/করোনার উপসর্গ নিয়ে আসা লোকদের চিকিৎসায় কাজ করবে। এর পাশাপাশি অন্যান্য রোগীর চিকিৎসা সেবাও দিবেন তারা।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ মঙ্গলবার রাতে জানান, নতুন নিয়োগকৃত ডাক্তার ও নার্সদের আগামী শনিবার সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। রবিবার অথবা সোমবার তারা চিকিৎসা সেবা দেওয়া শুরু করবেন।
তিনি আরো জানান, এসব চিকিৎসকের থাকা ও খাওয়ার জন্য বিশেষ আবাসনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তারা প্রধানত করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত থাকবেন। পাশাপাশি অন্যান্য রোগীর চিকিৎসা সেবাও দিবেন। তবে যেসব নারী চিকিৎসকের ছোট শিশুসন্তান রয়েছে তাদেরকে করোনা চিকিৎসার বাইরে রাখা হবে।

সিভিল সার্জন আরো জানান, এতজন চিকিৎসক ও নার্স একযোগে পদায়ন হওয়ায় চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা বিশেষ করে করোনা বিষয়ক আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসা সেবা দেওয়া আগের চেয়ে অনেক সহজতর হবে। বর্তমানে কর্মরত চিকিৎসকদের উপর মাত্রাতিরিক্ত ডিউটির চাপ কমবে। চাঁদপুরে পদায়নকৃত চিকিৎসক ও নার্সের অধিকাংশের বাড়ি চাঁদপুরে। বাকীদের বাড়ি কুমিল্লায় বলেও জানান সিভিল সার্জন।

প্রসঙ্গত, করোনা চিকিৎসার জন্য ৩৯তম (বিশেষ) বিসিএসে উত্তীর্ণ কিন্তু পদ স্বল্পতার কারণে ক্যাডার পদে সুপারিশপ্রাপ্ত নন, এমন ৮ হাজার ১০৭জন প্রার্থীর মধ্য হতে বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের সহকারী সার্জন পদে ২ হাজার জন চিকিৎসককে অতি সম্প্রতি জরুরী ভিত্তিতে নিয়োগ দেয় সরকার।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ