আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা মার্চ, ২০২১ ইং

সনাতনধর্মের যুগ বিভাগ

 

রনজিত কুমার পাল (বাবু)
নিজস্ব প্রতিবেদক:

যুগ চারটি – সত্য, ত্রেতা, দ্বাপর ও কলি।
১) সত্যযুগ – সত্যযুগে সবটাই ছিল ধর্ম। কথাটা সম্পূর্ণ সত্য হয়তো নয়। তবে বলা যায় ঃ সত্যযুগে শক্তিমান অধার্মিক কেউ থাকলে এবং তার অত্যাচার দুঃসহ হলে ভপবান বিষ্ণু অবতীর্ণ হয়ে তার প্রতিবিধান করেছেন।অধর্ম দূর হয়েছে, ধর্ম রক্ষা পেয়েছে।
হিরণ্যকশিপুর মতো ভীষণ অত্যাচারী ও পরাক্রমশালী রাজা সে যুগে ছিল। তার দানবীয় শক্তি এবং অত্যাচারী প্রকৃতির জন্য সম্ভবত তাকে দৈত্য নাম দেওয়া হয়েছিল।
বিষ্ণুৃদ্বেষী হিরণ্যকশিপুর পুত্র প্রহ্লাদ হলেন বিষ্ণুভক্ত – দ্বৈত্যকুলে প্রহ্লাদ। প্রহ্লাদকে সমুদ্রে, আগুনে এবং হাতীর পায়ের নিচে নিক্ষেপ করলেও তিনি অক্ষত রইলেন। কি বিপদ! শেষ পর্যন্ত নৃসিংহ দেবের হাতে হিরণ্যকেশিপুর মৃত্যু হলো।

২) ত্রেতাযুগ – ত্রেতার তিন ভাগ ধর্ম, এক ভাগ অধর্ম। এই শতকরা পঁচিশ ভাগ পাপই ত্রাহি মধুসূদন অবস্থার সৃষ্টি করলো। রাবণ তাঁর সাঙ্গোপাঙ্গদের নিয়ে নারী ধর্ষণ, নরহত্যা, ধ্বংস, লুন্ঠন, ইত্যাদি করে ত্রিভুবনের ত্রাস হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। বিষ্ণু রামরুপে জন্মগ্রহণ করে রাবণ ও কুম্ভকর্ণকে বধ করলেন, অন্যান্য রাক্ষসদের শায়েস্তা করলেন।

৩) দ্বাপরযুগ – দ্বাপর যুগে ধর্মের অবস্থা আরো সংকটাপন্ন। পাপ ও পূর্ণ, ধর্ম ও অধর্ম সমান সমান।
মানুষ মনের আনন্দে পাপ করে চলেছে। কলহ-বিবাদ- বিসংবাদ লেগেই আছে। অধর্ম আচরণে মানুষ উৎসাহ বোধ করছে। চারদিকে যুদ্ধ- বিগ্রহ, অত্যাচার- অনাচার। অধর্ম যেন সহস্র বাহু বিস্তার করে পৃথিবী গ্রাস করতে উদ্যত।
ভারতবর্ষ খন্ড খন্ড রাজ্যে বিভক্ত। রাজাদের প্রজা পালনের, প্রজাদের সুখ-দুঃখে অংশগ্রহণের, তাদের কল্যাণ ও উন্নতি বিধানের চেষ্টা নেই। তারা পররাজ্য আক্রমণ এবং নিজ রাজ্য শাসন ও শোষণ করে জলসা ঘরে নর্তকীর নৃত্য দর্শনে, সুন্দরী নারী ভোগে এবং মদ্য পানে বিভোর।

৪) কলিযুগ – কলিযুগে চার ভাগের তিন ভাগই পাপ। মিথ্যা, চুরি, প্রতারণা, হিংসা, যুদ্ধ-বিগ্রহ নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপার। এ যুগে আমরা বাস করছি এবং প্রতিদিন প্রতিমুহূর্তে পাপ আর পাপীর দ্বারা পর্যুদস্ত হচ্ছি।
এ যুগের লোকেরা ভাগ্যবানও বটে। শ্রীগৌরাঙ্গ, শ্রীরামকৃষ্ণ প্রমূখ বহু মহামানবব ও অবতার পেয়ে আমরা ধন্য।
এ যুগের কাহিনী, জ্ঞান-বিজ্ঞানের কথা বহু বইতে এবং সংবাদপত্রে সত্য-মিথ্যা নানা আকারে লেখা হচ্ছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ