আজ ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে চাঁদপুরে খোলা মাঠে কাঁচা বাজার স্থানান্তর

 

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

অবশেষে সচেতন মহলের দাবির পেক্ষিতে ও জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্তে চাঁদপুরে খোলা মাঠেই বসেছে মাছ-মাংসসহ কাঁচা বাজার।
করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে ২২ এপ্রিল থেকে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন ব্যবস্থাপনায় এবং পৌরসভার সহযোগীতায় শহরের এই ৫টি বাজার পাশ্ববর্তি খোলা মাঠে স্থানান্তরিত করা হয়।

এরইমধ্যে চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট বাজার পাশ্ববর্তি বাবুরহাট কলেজ মাঠে, ওয়ারলেছ বাজার পাশ্ববর্তি ওয়ারলেছ-গাছতলা ব্রীজ রাস্তার দুপাশে, বিপনিবাগ বাজার পাশ্ববর্তি চাঁদপুর সরকারি কলেজ মাঠে, পাল বাজার পাশ্ববর্তি পৌর ঈদগাহ মাঠে, এবং নতুন বাজারের কাঁচামাল, মাছ ও মাংসের দোকানগুলো যথাক্রমে রাস্তার দুপাশে (পর্যাপ্ত দূরত্ব বজায় রেখে) বসেছে।

বুধবার বেলা ১১ টায় শহরের পৌর ঈদগাহ মাঠে গিয়ে দেখা যায়, পুরো মাঠজুড়ে অত্যন্ত সুশৃঙ্খল ভাবে পর্যাপ্ত দূরত্ব বজায় রেখে কাঁচামাল, মাছ ও মাংসের দোকানগুলো বসানো হয়েছে।

সেখানে বাজার করতে আসা ক্রেতা আবুল গাজী, সোলেমান ও ছালেহা বেগম বলেন, এতোদিন আমরা পালবাজার কেনাকাটা করেছি।
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয় থাকলেও বাধ্য হয়ে আমরা মানুষের ভিড় ঢেলে বাজার করেছি। অবশেষে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে এমন খোলা মাঠে বাজার স্থানান্তরিত করায় আমরা খুশি।

পালবাজারের বেশ কয়েকজন তরকারি ও মাছ বিক্রেতার সাথে কথা হলে তারা বলেন, প্রশাসন আমাদের ভালোর জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে এখানে খোলা মাঠে দোকান করতে পেরে আমরাও খুশি।

দোকানিরা আরো বলেন, আজ প্রথম দিন বলে কাস্টমার কম হওয়াতে বেঁচাবিক্রি একটু কম হয়েছে। তবে প্রচার বাড়লে ক্রেতা বাড়বে। ব্যাবসায়ীরা এই আয়োজনের জন্যে জেলা প্রশাসন ও পৌরসভাকে ধন্যবাদ জানান।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঔষুধের দোকান ছাড়া সকল প্রকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার পাশাপাশি সাসাজি দূরত্ব বজায়ে রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তবে মাছের বাজার ও কাঁচাবাজারগুলোতে এই নির্দেশনা কিছুতেই বাস্তবায়ন করা যাচ্ছিল না।
এসব হাট-বাজারগুলোতে প্রতিদিন হাজার হাজার লোকের সমাগম ঘটছে। ফলে এই স্থান থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সুযোগ রয়েছে বলে বিভিন্ন মাধ্যমে প্রশ্ন উঠেছে।

পরিবর্তে জেলাবাসীর আবদারের পেক্ষিতে চাঁদপুর সদর আসনের এমপি ও শিক্ষা মন্ত্রী, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, পৌরসভার মেয়র এবং বাজার ব্যবসায়ীদের সম্মিলিত সিদ্ধান্তে শহরের প্রধান ৫টি হাট-বাজার পার্শ্ববর্তী মাঠে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
গত ১৯ এপ্রিল রোববার সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সংক্রান্ত বিশেষ সভা অনু্ষ্ঠিত হয়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ