আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ ইং

তুরাগ নদে ট্রলার ডুবি: উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ঢাকার সাভারের আমিন বাজার এলাকাযর তুরাগ নদে ট্রলারডুবির ঘটনায় শিশুসহ ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন আরও দু’জন।

নিখোঁজদের উদ্ধারে দ্বিতীয় দিনের মত অভিযান শুরু হলেও দুপুর দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলের অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে নিখোঁজদের সন্ধানে টহল অব্যাহত থাকবে বলে জানা গেছে।

রবিবার (১০ অক্টোবর) দুপুর দেড়টার দিকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিএর সহকারী পরিচালক শেখ রবিউল ইসলাম।

নিখোঁজ দুই জন হলেন- মা রুপায়ন বেগম (৩০) ও মেয়ে জেসমিন (২)। তাদের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায় নি। উদ্ধার করা হয়েছে সোহেলা, আরজিনা, ইমরান, আরমান, ফারহা মনিসহ ৫ জনকে।

এর আগে শনিবার (৯ অক্টোবর) ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে সাভারে আমিনবাজার তুরাগ নদের গাবতলী ও দ্বীপনগর পাড়ের মাঝনদীতে ১৮ জন যাত্রীসহ ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটে।

সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স হেডকোয়ার্টার থেকে জেমিনি বোর্ডস, ইটি গাড়িসহ সদরঘাট ও সাভার ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উদ্ধার কাজ পরিচালনা করেন।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, ঘটনার দিন ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে ১৮ জন যাত্রী নিয়ে সাভারে আমিনবাজার তুরাগ নদের সাধাপুর থেকে দ্বীপনগর পাড়ের দিকে যাচ্ছিলো। ট্রলারটি মাঝ নদীতে গেলে বালুবাহী বাল্ক হেডের ধাক্কায় ডুবে যায়। এসময় ১১ জন যাত্রী সাঁতার দিয়ে তীরে ফিরে আসলেও নিখোঁজ হন শিশুসহ ৭ জন।

এদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে আলো স্বল্পতার কারনে ও নদীতে স্রোত বেশি থাকায় সন্ধ্যা ৬ টার দিকে অভিযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। দ্বিতীয় দিনের মত রোববার সকাল নয়টায় উদ্ধার অভিযান শুরু হলে দুপুরে তা সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়। তবে নিখোঁজ দুই জনের সন্ধানে টহল অব্যাহত থাকবে।

বিআইডব্লিউটিএর সহকারী পরিচালক শেখ রবিউল ইসলাম বলেন, ১৮ থেকে ২০ ঘন্টা বেড লেবেলে থাকার কথা না। যেহেতু ৩২ থেকে ৩৩ ঘন্টা হয়েছে সেহেতু আমরা এখানকার কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

নিখোঁজ দুই জনের মরদেহ নিচের দিকে থাকার সম্ভাবনা বেশি। তাই এখান থেকে ৪ থেকে ৪ কিলোমিটার ভাটিতে খোঁজ করে ওপরের দিকে ওঠা হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ