আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ ইং

চলন্তবাসে যাত্রী ধর্ষণ: আসামিদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বোনের বাসা থেকে নিজ বাসায় যাওয়ার সময় চলন্ত বাসে নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শনিবার (২৯ মে) দুপুর পৌনে ১ টার দিকে পুলিশ ভ্যানে করে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে শুক্রবার (২৮ মে) রাত ১টার দিকে ঢাকা আরিচা-মহাসড়কের ডেইরিগেট সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- ঢাকার তুরাগ থানার গুলবাগ ইন্দ্রপুর ভাসমান গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার তারাগুনা এলাকার মৃত আতিয়ারের ছেলে সাজু (২০), বগুড়া জেলার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার সুলতান মিয়ার ছেলে সুমন (২৪), নারায়নগঞ্জ জেলার বন্দর থানার ধামঘর এলাকার জহুর উদ্দিনের ছেলে মনোয়ার (২৪), বগুড়া জেলার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে সোহাগ (২৫) ও বগুড়া জেলার ধুপচাচিয়া থানার জিয়ানগর গ্রামের সামছুলের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)। তারা সবাই তুরাগ থানার কামারপারা ভাসমান এলাকায় ভাড়া থেকে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কে মিনিবাস চালাতো।

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঢাকা জেলা উত্তর) আব্দুল্লাহ হিল কাফি জানান, ভুক্তভোগী বোনে বাসা মানিকগঞ্জ জেলা থেকে ফেরার পথে আশুলিয়ার নবীনগর বাস স্ট্যান্ডে নেমে নিউ গ্রামবাংলা মিনিবাসে ওঠেন। এসময় রাত ৯ টার দিকে নিউগ্রাম বাংলা মিনিবাসের হেলপার আসামি মনোয়ার ও সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম এসে টঙ্গী স্টেশন রোডের কথা বলে ৩৫ টাকা ভাড়া চায়। পরে সঙ্গীয় একজনকে নিয়ে মিনিবাসে উঠলে গন্তব্যে যাওয়ার আগেই সকল যাত্রীদের নামিয়ে দিয়ে ভুক্তভোগীকে জোরপূর্বক বাসে করে নিয়ে আবার নবীনগরে ফিরে আসার সময় বাসের জানালা-দরজা আটকিয়ে তাকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে বাসের চালক, হেলপারসহ ৬ জন। ভুক্তভোগীর সাথে থাকা ব্যক্তির চিৎকারে টহল পুলিশ বুঝতে পেরে বাসটি থামিয়ে ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে ৫ জনকে গ্রেফতার করে। আজ দুপুর পৌনে ১ টার দিকে তাদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, গতরাতেই অভিযুক্তদের আটক করা হয়েছে। ভুক্তভোগীর দায়েরকৃত মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে ভুক্তভোগী নারীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ