আজ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুন, ২০২৪ ইং

সাংবাদিক রোজিনার মুক্তি দাবিতে ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের মানববন্ধন

রনজিত কুমার পাল (বাবু)নিজস্ব প্রতিবেদক :

প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তাকে নির্যাতনকারীদের শাস্তির দাবিতে ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে সাংবাদিকরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ পালন করেছে।

বুধবার (১৯ মে-২০২১খ্রীস্টাব্দ) বেলা ১২ টায় ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাব এর আয়োজনে ধামরাই উপজেলা পরিষদের চত্বরে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে
মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন- ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি দৈনিক তৃতীয় মাত্রা ও দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার সাংবাদিক রনজিত কুমার পাল, ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও এশিয়ান টেলিভিশনের সাংবাদিক মোঃ আশরাফুল ইসলাম, ধামরাইয়ের সিনিয়র সাংবাদিক দৈনিক ভোরের কাগজ ও দেশ টিভির ধামরাই উপজেলা প্রতিনিধি শ্রী দীপক চন্দ্র পাল, ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানা, ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক দৈনিক বাংলাদেশের আলো পত্রিকার সাংবাদিক ইমরান খান, অর্থ সম্পাদক দৈনিক দিনকাল পত্রিকার সাংবাদিক আমির হামজা, প্রচার সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক দৈনিক সকালের সময় পত্রিকার সাংবাদিক সোহেল রানা সহ প্রতিবাদ কর্মসূচিতে দেশের শীর্ষ স্থানীয় পত্রিকা, টেলিভিশন চ্যানেল, অনলাইনের গণমাধ্যমকর্মীর ছিলেন।

এ সময় বক্তব্য রাখেন ধামরাই উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি, দৈনিক তৃতীয় মাত্রা ও দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার ধামরাই উপজেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক রনজিত কুমার পাল (বাবু),সহ-সভাপতি এশিয়ান টেলিভিশন এর প্রতিনিধি মোঃ আশরাফুল ইসলাম, উপজেলা প্রেসক্লাবের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাসুদ রানা প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিক হলো সমাজের দর্পন। রাষ্ট্রের বিভিন্ন দপ্তরের অনিয়ম ও দুর্নীতিসহ সমাজের অসঙ্গতিগুলো সাংবাদিকগণ গণমাধ্যমে তুলে ধরেন বলেই জাতি তা জানতে পারেন। এর ফলে অনিয়ম-দুর্নীতি অনেকাংশে কমে আসে। ফলশ্রুতিতে রাষ্ট্র সামনের দিকে এগিয়ে যায়।

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামও স্বাস্থ্য বিভাগের নানা রকম অনিয়ম, দুর্নীতি ও জনগণের শত শত কোটি টাকা লুটপাটের খবর ধারাবাহিকভাবে দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় প্রকাশ করায় সংশ্লিষ্ট দুর্নীতিবাজরা তার উপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে এবং সোমবার বিকালে পেশাগত দায়িত্ব পালনে তথ্য সংগ্রহে সচিবালয়ে গেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগমসহ অন্যান্যরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে প্রায় ৬ ঘন্টা আটকে রেখে তার উপর শারিরীক ও মানসিক অমানবিক নির্যাতন চালায়। অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগম একপর্যায়ে রোজিনা ইসলামের গলা টিপে ধরে। অন্যান্যরা তাকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতনের পর মিথ্যা মামলা সাজিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

বক্তাগণ এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং অনতিবিলম্বে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তি, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তাকে হেনেস্তাকারীদের কঠোর শাস্তি বর্তমান সময়ের সকল বিবেকবান নাগরিকদের অন্যতম দাবি।
এসময় বক্তারা বলেন,যেভাবে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়েছে তা মুক্ত গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতার জন্য হুমকি। এসময় বক্তারা রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করে তাঁকে নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়ার জোর দাবি জানান। মানববন্ধনে বক্তারা সাংবাদিক রোজিনা ইসলামসহ সারাদেশে সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন নিপীড়ন এর তীব্র প্রতিবাদ জানায় ।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ