আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ ইং

কালিয়াকৈরে স্বামী-ছেলের বিরুদ্ধে বৃদ্ধাকে নির্যাতনের অভিযোগ

মো. ইলিয়াস চৌধুরী, কালিয়াকৈর,  প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে স্বামী-ছেলের বিরুদ্ধে বৃদ্ধাকে অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এমনকি পাগল আখ্যা দিয়ে লোহার শিকল দিয়েও বেঁধে রাখা হয়েছিল। রোববার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে এসব ঘটনায় ওই বৃদ্ধা বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
বৃদ্ধা সুকিতন (৭০) উপজেলার ঠেঙ্গার বান্দ এলাকার মৃত ছুলু মিয়ার ছেলে হাবিবুর রহমান হবু মিস্ত্রীর স্ত্রী এবং উপজেলার কাথাচুরা এলাকার মৃত রাইজ উদ্দিন মুন্সির মেয়ে।

এলাকাবাসী ও বৃদ্ধার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ৫০ বছর আগে হবু মিস্ত্রীর সঙ্গে বিয়ে হয় সুকিতনের। দীর্ঘ সংসার জীবনে সুরুজ মিয়া, সুলতান মিয়া, সুজন মিয়া ও তাহমিনা আক্তার নামে চার ছেলে-মেয়ের জননী হন তিনি। ছেলে-মেয়ে বড় হয়ে বিয়ের পর পৃথকভাবে সংসার শুরু করে। এরপর তার জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। বিভিন্ন সময় ছেলেদের কুপরামর্শে তার স্বামী নির্যাতন করে আসছে তাকে। ওয়ারিসের সম্পত্তির টাকা ভাগাভাগি করে নেয়ার পর আবারও নির্যাতন শুরু করে তারা। দুই বছর আগে পিটিয়ে পা ভেঙে দিলে বাবার বাড়ির লোকজন চিকিৎসা করান। চলাফেরা করতে অক্ষম হয়ে পড়ায় ভরণ-পোষণ ও খোঁজ-খবরও রাখে না স্বামীর বাড়ির কেউ। এমনকি তাদের কাছে কিছু চাইলে পাগল আখ্যা দিয়ে গাছের সঙ্গে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে।

সর্বশেষ গত ছয় রোজায় ওই বৃদ্ধাকে মারধর করে তারা। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে ওই দিনই বৃদ্ধা ভাই শামসুল আলম ও আব্দুর রহমানের বাড়ি চলে যান। কিন্তু স্বামীর পরিবার থেকে বৃদ্ধার কোনো খোঁজ-খবর না নিয়ে আরও বিভিন্ন ভয়ভীতিসহ হত্যার পর লাশ গুমের হুমকি দিয়ে আসছেন। এ ঘটনায় ওই বৃদ্ধা সুকিতন বাদী হয়ে হবু মিস্ত্রী ও তিন ছেলের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

বৃদ্ধা সুকিতন বলেন, তারা আমার ভরণ-পোষণ করে না। কিছু চাইলে আমাকে মারধর করে ও পাগল আখ্যা দিয়ে গাছের সঙ্গে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রাখে।
বৃদ্ধার ছোট ভাই শামসুল আলম জানান, বোনের স্বামী ও তার ছেলেরা বিভিন্ন সময় বোনকে নির্যাতন করে আসছে। বোনের স্বামী খারাপ প্রকৃতির লোক। আরেকটি বিয়ে করেছিলেন, তাকেও মারধর করে তাড়িয়ে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, এ ঘটনায় ওই বৃদ্ধা বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইন অনুগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ