আজ ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে জুন, ২০২৪ ইং

মুন্সীগঞ্জে মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে  সংবাদ সম্মেলন  

মোঃ আহসানুল ইসলাম আমিন 

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে এক প্রভাবশালী রিসোর্টের মালিক হাজী নজরুল ইসলাম ঢালীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে একটি আসহায় পরিবার। তাদের দাবী এই প্রভাবশালী রিসোর্টের জন্য জমির চাহিদা থাকায় এলাকার সাধারণ মানুষের জমি নিতে নানা কৌশল অবলম্বন করছে। যারা জমি দিতে বা বিক্রি করতে রাজি হচ্ছে না অথবা এসব বিষয়ে তার বিরুদ্ধে কথা বলছে, তাদের মিথ্যা মামলা দিয়ে ও নানা ভাবে অত্যাচার ও হয়রানী করছে। মিথ্যা মামলা ও নানা ভাবে হয়রানী থেকে মুক্তিপেতে এবং জান মালের নিরাপত্তায় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ, প্রশাসন ও সুশীল সমাজের প্রতি আকুল আবেদন করেন।

গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় সিরাজদিখান প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের বাহের কুচি গ্রামের ইদ্রিস মিয়ার পরিবার। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন তার স্ত্রী পারভীন বেগম (৪৮), লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মেয়ে এ্যানি আক্তার (২২)। এ সময় সাথে ছিলেন ইদ্রিস মিয়ার ২ ছেলে সাব্বির হোসাইন (২২) এবং সাজিদ হোসাইন (১৭) সহ এলাকার কিছু ভূক্তভোগী ও স্বজন।  এছাড়া প্রসক্লাবের সভাপতি ইমতিয়াজ বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক জাবেদুর রহমান যুবায়েরসহ ক্লাবের অন্যান্য সদসরা উপস্থিত ছিলেন। ইদ্রিস মিয়ার স্ত্রী পারভীন বেগম তার বক্তব্যে বলেন, আমার স্বামী অসুস্থ, আমার মেয়ে মাস্টার্স এ লেখাপড়া করছে এক ছেলে ইন্টারে আরেক ছেলে দশম শ্রেণিতে পড়ে। তাদের লেখা-পড়া, ভরন-পোষনে হিমশিম খাচ্ছি। তার পর একাধিক মামলা দিচ্ছে। এ মামলা গুলো আমাদের পক্ষে চালানো সম্ভব না। তাই আমরা জীবনের নিরাপত্তা ও হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ চাই।

এ্যানি আক্তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ১৩ জানুয়ারী ২০২১ তারিখ রিসোর্টের মালিক নজরুল ঢালীর ও তার সহযোগী মাসুমের নির্দেশে আক্তার হোসেন (৫৪), রাজিব হোসেন (৩৬) ও মাসুম (৪২) নিজে উপস্থিত থেকে দুই শতাধিক লোকজন নিয়ে আমাদের বাড়িতে অতর্কিত হামলা করে। বসত বাড়ির ঘর, ভিটি বাড়ির সীমানার বেড়া ভেঙ্গে ফেলে ও বাগানের কাঠগাছ ও কলাগাছগুলো কেটে ফেলে। ঘরের টিন, বেড়ার টিন ও ঘরে থাকা আসবাব পত্র লুট করে ঢালী আম্বার রিসোর্টের ভীতরে নিয়ে যায়। আমাকে আমার বাবা-মা, ছোট ভাই ও ফুপুর গায়ে আঘাত করে। তখন আমরা ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে পুলিশের সহায়তা নেই। কয়েকটি মিথ্যা মামলাও দিয়েছে। এ জমি নিয়ে উচ্চ আদালতে দেওয়ানী মামলা চলমান আছে। নজরুল ঢালীর রিসোর্টের এক কর্মচারী আক্তার হোসেন বাদী হয়ে একটি সি. আর মামলা নং ২৬/ ২০২১, আমার ছোট দুই ভাইকে প্রধান আসামী করে মোট ৮ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, লুটতরাজ, হত্যাচেস্টা, ইভটিজিং জায়গা দখলের অভিযোগ এনে মিথ্যা মামলা করেন। গত ১৬-০২-২০২১ আমাদের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সিরাজদিখান থানায় সাধারণ ডায়েরী করি। আমরা কারো কোন সহযোগিতা পাই না। এলাকার অনেকে ও আমাদের স্বজনরাও মিথ্যা মামলায় ভূক্তভোগী হয়েছে। আমরা শান্তিতে বাচঁতে চাই।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ