আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ ইং

৯৯৯ কল প্রানে বেচে গেলেন ৫ শতাধিক যাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক  

 

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় থেমে থাকা একাধিক বালুবাহী বাল্কহেডের সঙ্গে যাত্রীবাহী লঞ্চ এমভি ফারহান-৬ এর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন লঞ্চের পাঁচ শতাধিক যাত্রী। লঞ্চটি ঢাকার সদরঘাট থেকে ভোলার উদ্দেশে যাচ্ছিল।শুক্রবার রাতের এ ঘটনায় যাত্রীবাহী লঞ্চটির সামনের অংশ ছিদ্র হয়ে যায়। আতঙ্কিত যাত্রীরা লঞ্চটি নিরাপদ স্থানে থামানোর জন্য বললেও লঞ্চটি না থামিয়ে উল্টো লঞ্চের স্টাফরা যাত্রীদের মারধর করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এক পর্যায়ে লঞ্চের যাত্রীদের কেউ জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সাহায্য চাইলে লঞ্চটি মুন্সীগঞ্জ লঞ্চঘাটে ভেড়ানো হয়। খবর ইউএনবির

মুক্তারপুর নৌ-পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. লোকমান জানান, লঞ্চটির সামনের অংশ ছিদ্র হওয়ায় লঞ্চটিকে মুন্সীগঞ্জ লঞ্চঘাটে এনে সারানো হয়। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) থেকে প্রকৌশলীরা ঠিক করে দিলে লঞ্চটি যাত্রী নিয়ে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দেয়।

লঞ্চযাত্রী নিরব হোসেন অভিযোগ করেন, বাল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কায় লঞ্চের সামনের অংশের ওপর ও নিচের অংশে ছিদ্র হয়ে যায়। এ সময় বালুর বস্তা ও সিমেন্টের বস্তা দিয়ে পানি বন্ধের চেষ্টা করা হলেও তা বন্ধ না হয়ে পানি ভেতরে প্রবেশ করতে থাকে। কিন্তু তারমধ্যেই যাত্রীদের অনুরোধ উপেক্ষা করে লঞ্চটি চলতে থাকে।তিনি বলেন, এক পর্যায়ে বেশি পানি ভেতরে আসতে থাকলে যাত্রীদের চাপের মুখে বাধ্য হয় তাদের নামিয়ে দিতে। এ সময় প্রায় ১০০ যাত্রী লঞ্চ থেকে নেমে যায়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ