আজ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জুন, ২০২২ ইং

ভুয়া চাকুরীদাতা প্রতারক চক্রের ১৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৪

 

আনিসুর রহমান দিপু :  

র‍্যাব-৪ এ সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আসে ‘‘দিকরা সিকিউরিটি এন্ড লজিস্টিক সার্ভিসেস লিমিটেড” নামক একটি কোম্পানী চাকুরীপ্রার্থী মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকুরী দেওয়ার নাম করে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

২০ই সেপ্টেম্বর বিকাল হতে রাত ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব-৪ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে ‘‘দিকরা সিকিউরিটি এন্ড লজিস্টিক সার্ভিসেস লিমিটেড”, পল্লবী, আনোয়ারা লজিস্টিক এন্ড সিকিউরিটি সার্ভিসেস লিমিটেড, সেনপাড়া”, কাজীপাড়া, আনোয়ার লজিস্টিক এন্ড সিকিউরিটি সার্ভিসেস লিমিটেড”, আদাবর, মোহাম্মদপুর এ তিনটি শাখা হতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ভুয়া চাকুরীদাতা প্রতারক চক্রের নিম্নোক্ত ১৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে এবং ৪৪ জন ভুক্তভোগী চাকুরীপ্রার্থী উদ্ধার করা হয়।

ঘটনাস্থল হতে গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ২৪টি ভর্তি ফরম বই, ১০টি ভিডিটিং কার্ডের বক্স, ৭০ পাতার চাকুরির নিয়োগ ফরম,০৭টি ভুয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, নগদ মোট-৯৭,০০০/-টাকা, ৫ টি রেজিস্টার, ১ টি নোট বুক, ১ টি খাতা, ৫২ সেট চাকরীপ্রার্থীর জীবন বৃত্তান্ত, ৮ টি সিল, ২টি পরিচয়পত্র, ৫টি ভুয়া পোস্টিং ফরম জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অফিস ভাড়া করে বিভিন্ন নামে প্রতিষ্ঠান খুলে দেশের বিভিন্ন জায়গায় মধ্যশিক্ষিত বেকার ও নিরীহ যুবকদের চাকুরী দেয়ার নাম করে ভুয়া নিয়োগপত্র দিয়ে দীর্ঘদিন থেকে প্রতারক চক্রটি নিরীহ ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে। আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় এই প্রতারক চক্রের মুল হুতা মামুন হোসেন বিল্লাল (৩৬) জেলা-বরিশাল। তার তত্ত্বাবধানে উপরোক্ত ০৩টি ভুয়া প্রতিষ্ঠান পরিচালিত হত। মামুন ছাড়াও পলাতক আরও ৪/৫ জন এই প্রতারনার কাজে জড়িত। পলাতকদের গেস্খফতারে জোড় প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

উক্ত গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতারক চক্রদের বিরুদ্ধে তদন্ত এবং গ্রেফতার করার জন্য গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। অদূর ভবিষ্যতেও এইরুপ অসাধু চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ