আজ ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

সাভারে ছাত্রলীগের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে পন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

বাল্য বিবাহ বন্ধে সরকার কঠোর অবস্থানে থাকার পরও বাল্য বিয়ের আয়োজন করে প্রবাসী বিল্লাল মিয়া ১৪ বছরের মেয়ের।

বাল্য বিয়ের ঘটনাটি সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নে ৭ নং ওয়ার্ড মোগড়াকান্ধা উত্তর পাড়ার বিল্লাল এর মেয়ে। বাল্য বিয়ের সংবাদ রবিবার (৯ ফেব্রয়ারি) গণমাধ্যমে প্রচার হলে বাল্য বিয়ে বন্ধে এগিয়ে আসে সাভার থানা ছাত্রলীগ।
সাভার থানার ভাকুর্তা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জুয়েল আহম্মেদ ঘোষণা করে যে কোন উপায়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করা হবে।
সাভার থানার ভাকুর্তা ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য জাকির হোসেন জানায় বিল্লাল মিয়ার মেয়ের বাল্য বিয়ের আয়োজন চলছে। রবিবার গায়ে হলুদ ও সোমবার বিয়ে। এই প্রতিবেদক ইউপি সদস্য কে বাল্য বিয়ে বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি গড়ি মসি শুরু করেন। ইউপি সদস্য বাল্য বিয়ে বন্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করার অভিযোগ উঠে।

রবিবার তানজিলার গায়ে হলুূদ চলছে জানার পর রাত ১১ঘটিকার সময় এই প্রতিবেদক ৯৯৯ কল করলে সাভার থানার উপপরিদর্শক এনামুল হক রাতেই গায়ে হলুদ বন্ধ করে।

সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারী) ভাকু্তা মোগড়াকান্দায় তানজিলাকে বাল্য বিয়ে করতে আসবে শুনে ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল আহম্মদকে সাভার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজীব নির্দেশ প্রদান করে বাল্য বিয়ে বন্ধ করার জন্য। সেই নির্দেশে ভাকুর্তা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক জুয়েল আহম্মেদ এবং ভাকুর্তা গ্রামের গণমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বিল্লাল মিয়ার এর বাড়িতে উপস্থিত হয় ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল আহম্মেদ। ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল আহম্মেদ বাল্য বিয়ের কুফলের বিষয়ে বুঝিয়ে তানজিলার বিয়ে বন্ধ করতে সক্ষম হয়। ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল আহম্মেদ বলেন বাল্য বিয়ের বর কেরানীগঞ্জের ইটালি প্রবাসী ও তানজিলার পিতা ও ইটালি প্রবাসী।

তানজিলার পিতা অঙ্গিকার করে ১৮ বছরের আগে তানজিলার বিয়ে দিবে না।
সাভার উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুর আতিক বলেন বাল্য বিয়ে বন্ধে ছাত্রলীগ সব সময় কাজ করবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ