আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

জনশূন্য লক্ষ্মীপুর : অসহায়রা পেল ইউএনওর খাদ্যসামগ্রী

মোঃ হৃদয় হোসেন লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

 

প্রাণঘাতী করোনা-ভাইরাস প্রতিরোধে লক্ষ্মীপুরে নিত্যপণ্য, ফার্মেসি, হাসপাতাল ব্যতিত সকল ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছে। একই সাথে রিকশা, ভ্যানসহ সকল ধরণের যান চলাচলও বন্ধ করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এতে ব্যস্ত শহর অনেকটাই ফাঁকা ও জনশূন্য। আয় বন্ধ হয়ে যাওয়া দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে আতংকে বিরাজ করছে। নির্বাহী ম্যাজিষেষ্ট্রটদের নেতৃত্বে মাঠে টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী।

আজ পর্যন্ত লক্ষ্মীপুরে নতুন ৬৯ জনসহ মোট ৮৭২ জন হোম কোয়ারাইন্টাইনে আছে। হোম কোয়ারাইন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের বাড়িতে গিয়ে নির্বাহী ম্যাজিষেষ্ট্রটদের অধিনে সেনাবাহিনী টহল দিচ্ছে। এছাড়াও জনসচেতনতায় কাজ করছে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জন সহ সকল জনপ্রতিনিধিরা।

এদিকে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। সকালে সদর উপজেলা জকসিন বাজারের বিভিন্ন স্থানে পায়ে হেঁটে চাল-ডাল, তেল-লবণসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন ইউএনও আরমান শাকিল। এতে প্রতিটি পরিবারের জন্য এক সপ্তাহের খাদ্যসামগ্রী দেয়া হয়।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে একই সময় জকসিন-বাজারে বিভিন্ন যানবাহনে জীবাণুনাশক স্প্রে ক ইউএনও আরমান শাকিল। তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মামুনুর রশিদ।

সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হাঁট বাজার বন্ধ হলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুক্ষিন হবে ক্ষুদ্র ও ছিন্নমূল মানুষরা। তাদের আয় রোজগারে পুরো পরিবার চলে। তাই আমার সামর্থ্য অনুযায়ী তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি।
এ দিকে জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী শহরের অপ্রয়োজনীয় সকল দোকান বন্ধ রয়েছে। জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বাহির হচ্ছেন না। জন- সচেতনতায় মাঠে কাজ করছেন জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ