আজ ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

লক্ষ্মীপুরে পাইকারে জিম্মি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী

মোঃ হৃদয় হোসেন রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে পাইকারি দোকানদারদের কাছে জিম্মি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা। করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যগুলো অধিক দামে বিক্রি করছেন। এতে বিপাকে পড়েছেন নিম্মআয়ের মানুষগুলো। কয়েকটি দোকানির জরিমানা করেও দ্রব্যমূল্যের দামের উর্দ্ধগতি রোধ করতে পারছে না প্রশাসন।

জানা গেছে, উপজেলার সোনাপুর বাজারের শাহাদাত ব্রাদার্স, খালেক মাস্টা, বলরাম বণিক, শ্রীনাথ বণিক, রামগঞ্জ বাজারের রশিদ পাটোয়ারীর, মিতালি স্টোর, আমিন পাটোয়ারী স্টোর সহ কয়েকজন ব্যবসায়ীর সিন্ডিকেট রামগঞ্জ উপজেলার মুদি ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করে থাকে। তাদের থেকে বেশি দামে পণ্য ক্রয় করায় ছড়াও মূল্যে খুচরা ব্যবসায়ীরা বিক্রি করতে হচ্ছে। তাছাড়া মালামাল মজুদ করে বাজারে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করছে। পরে ইচ্ছেমত দামে পণ্যগুলো বিক্রি করছেন। এতে প্রতারিত হচ্ছে ক্রেতারা।

আনোয়ার হোসেন ও নাছিমা বেগম সহ কয়েকজন ক্রেতা জানান, খুচরা বাজারে চালের দাম প্রতি বস্তায় ৪ থেকে ৫’শ টাকা, পেয়াজ প্রতি কেজি ৩০ থেকে ৪০ সহ অন্যান্য সকল পণ্যে ২০ থেকে ৫০ টাকা বেশি মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে। ব্যবসায়ীরা করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি করে ফেলেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী জানান শনিবার(২১ মার্চ) এই প্রতিবেদককে জানান পাইকার থেকে অধিক মূল্যে পণ্য ক্রয় করার বিক্রি ও বেশি দামে করতে হচ্ছে। এজন্য ভ্রাম্যমান আদালত জরিমানাও করছে আমাদের। অথচ ভ্রাম্যমান আদালত পাইকারদের দোকানে যায় না, সেখানে জরিমানাও করেনা।

রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান বলেন, চাল, ডাল সহ নিত্যপণ্যের অধিক দামে বিক্রি করায় কয়েকটি দোকানিকে জরিমানা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান ভবিষ্যতেও অব্যহত থাকবে বলে জানান তিনি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ