আজ ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং

পাটগ্রামে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার

পরিমল চন্দ্র বসুনিয়া,লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কার করলেও পৌর নির্বাচনে সরে দাড়াচ্ছেন না কাজী আসাদ।

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বুধবার বহিষ্কার সংক্রান্ত একটি পত্র তাকে পাঠানো হয়েছে বলে জানান মোতাহার হোসেনের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা অধ্যক্ষ আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল।

জানা গেছে, জেলার পাটগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম সুইটকে মনোনয়ন দেয়া হয়। ওই পৌরসভায় মেয়দ পদে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কাজী আসাদুজ্জামান আসাদ বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ মার্কা নিয়ে নির্বাচন করছেন। যা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল। ফলে আসাদকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বহিষ্কার করে জেলা আওয়ামী লীগ।

একইসঙ্গে সদর পৌরসভায় যুবলীগ নেতা রেজাউল করিম স্বপনও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ মার্কা নিয়ে নির্বাচন করেছেন। তাকেও এর আগে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আরো জানা যায়, গত শনিবার (৩০ জানুয়ারি) পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি /সম্পাদক তিন দিনের সময় দিয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে। কিন্তু বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী আসাদুজ্জামান আসাদ নোটিস এর কোন জবাব দেয়নি।

ফলে জেলা আওয়ামী লীগ বুধবার সকালে কেন্দ্রের নির্দেশনায় বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে পাটগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার ঘোষণা করে চিঠি পাঠায়।

লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান বলেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নির্দেশে পাটগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এবিষয়ে পাটগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিদ্রোহী প্রার্থী কাজী আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, ভুল প্রার্থীকে মনোনয়ন এনে দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। তিনি আরও বলেন, জেলা আওয়ামী লীগ তাকে বহিষ্কার করার ক্ষমতা রাখে না জেলা আওয়ামীলীগ তাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে পাঠাতে পারে। তবে ১৪ তারিখ এ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী তার কাছে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হবে বলে তিনি বিশ্বাস রাখেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ