আজ ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুন, ২০২২ ইং

গোদাগাড়ীতে  প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত শিল্পীরা চলছে শেষ মুহূর্তের কাজ

মোঃ ইসহাক
গোদাগাড়ী(রাজশাহী) উপজেলা প্রতিনিধিঃ 
রাজশাহী গোদাগাড়ীতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন উপলক্ষে মন্ডপ গুলোতে চলছে প্রতীমা তৈরির শেষ মুহূর্তের কাজ, ব্যস্ত  মৃৎশিল্পীরা।
 বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) এর মধ্যে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজা। আর মাত্র ছয় দিন বাঁকি শারদীয় দূর্গা পুজার। উৎসব টিকে সামনে রেখে গোদাগাড়ী উপজেলার পূজা মন্ডপ গুলোতে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছে প্রতিমা শিল্পীরা। এবছর গোদাগাড়ী উপজেলায় ৩৯টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হবে বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদে সভাপতি।
পুজা উৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে মন্দির গুলোতে চলছে  সাজসজ্জার প্রস্তুতি। ইতি মধ্যে বেশির ভাগ মন্ডপে প্রতিমায় মাটি লাগানোর কাজ প্রায় শেষ।কিছু কিছু মন্দিরে শুরু হয়েছে রং তুলির কাজ।
আগামী ২২-২৬ অক্টোবর ৫ দিন ব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হবে। স্থানীয় শিল্পী ছাড়াও বিভিন্ন স্থান থেকে আগত শিল্পীরা এখানে এসে প্রতিমা তৈরি ও রং তুলির কাজ করছেন। অন্যদিকে প্রতিমার পাশাপাশি বাদ্যযন্ত্র ঠিক ও তৈরী করতে ব্যস্ত সময় পার করছে ঢাক-ঢোল, কাঁশি ও বাঁশির কারিগররা।
এই দিকে মহামারী করোনার কারণে প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী পুজা অনুষ্ঠানে সব ধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।
গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ খাইরুল ইসলাম বলেন, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মন্দির গুলোতে নিরাপত্তায় ও শান্তিপূর্নভাবে উৎসব উদযাপনের লক্ষে সকল প্রস্ততি নেওয়া হয়েছে। সামাজিক দুরুত্ব এবং আইনশৃংখলা ঠিক রাখতে প্রতিটি মন্দিরে পুলিশের পাশাপাশি আনসার ও গ্রামপুলিশের নজরদারি অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ