আজ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুন, ২০২২ ইং

নওগাঁ -৬ আসনে  কাজ করতে চাই বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এছাহাক আলী

মোঃ ফিরোজ হোসাইন
নওগাঁ প্রতিনিধিঃ

আগামী ১৭ অক্টোবর উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনে। রাণীনগর ও আত্রাই এই দুই উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬ ও সংসদীয় আসন-৫১। বর্তমানে এই আসনে উপনির্বাচনের হাওয়া বইছে।
সরকার দলীয় প্রার্থী ঘোষনা করা হলেও বিএনপি এখনো চ’ড়ান্ত প্রার্থী ঘোষনা করেনি। আসন্ন উপ-নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল (বিএনপি) মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু করেছে।
বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী অনেকের নাম শোনা গেলেও জনসম্পৃক্ততা ও আলোচনায় রয়েছেন উপজেলার গোনা ইউনিয়নের গোনা গ্রামের বিএনপি নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব এছাহক আলী। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি তাঁতি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক পদে রয়েছেন। তিনি বিএনপির ক্রান্তিকালসহ সব সময় মাঠে ছিলেন। এই অঞ্চলের মানুষের পাশে তিনি সব সময় ছিলেন এবং আগামীতেও থাকবেন বলে জানান এছাহক আলী।

এছাহক আলী বলেন, বর্তমান অত্যাচারিত সরকারের দীর্ঘ সময়ে এই আসনের যে সকল বিএনপি নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন মামলাসহ অত্যাচারের শিকার হয়েছে আমি তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। বিএনপির দু:সময়ে দলের পাশে থেকে দলকে সুসংগঠিত রাখতে চেষ্টা করেছি। দেশনেত্রী বেগম জিয়া ও দলের সকল রাজবন্দিদের মুক্ত করার লক্ষ্যে সব সময় রাজপথে থেকে আন্দোলন করেছি। আমি যখনই সুযোগ পাই তখনই এলাকায় এসে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরের লোকালয়ে গিয়ে সাধারন মানুষদের কাছে শহীদ জিয়ার আদর্শকে পৌছে দেওয়ার চেষ্টা করি।

তিনি বলেন,আমি অবহেলিত ও অত্যাচারিত মানুষদের খোঁজখবর নেওয়ার চেষ্টা করে আসছি। তাই দল আমার সকল কিছু বিচার-বিশ্লেষন ও তৃনমূলের মতামতের ভিত্তিতে যদি আমাকে উন্নয়নের প্রতিক ধানের শীষ দেয় তাহলে আমি আশাবাদি আমি বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে দেশনেত্রীকে দীর্ঘদিন পরাজিত এই আসনটিকে উপহার দিতে পারবো। কারণ মানুষরা বর্তমানে বিএনপির পক্ষ থেকে একজন নতুন মুখকে দেখতে চায়। এছাড়া আমি এই অঞ্চলের মানুষের কাছে একটি সুপরিচিত মুখ। কারণ দীর্ঘদিন যাবত এই অঞ্চলের মানুষ বর্তমান সরকারের দখলবাজি, চাঁদাবাজি, ঘুষ, দুর্নীতিসহ অন্যায়-অত্যাচারের যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে দিশেহারা। তাই তারা শাসনের পরিবর্তন চায়। আর আমি আশা রাখি দল যদি আমাকে এই উপনির্বাচনে বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন দেয় এবং স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় তাহলে আমি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে এই অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের চাওয়া-পাওয়া পূরন করার চেষ্টায় কাজ করবো।
তিনি বলেন, আমি শতভাগ আশাবাদি যে ভোট দেওয়ার সুযোগ পেলেই দলবল নির্বিশেষে সকল শ্রেণিপেশার মানুষ আমাকেই ভোট দেবে। উলে­খ্য, গত ২৭জুলাই আওয়ামীলীগের ৩বারের নির্বাচিত সাংসদ ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে এই আসনটি শুণ্য হয়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ