আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং

পটুয়াখালীর অস্তিত্ব সংকটে তেলিখালী খাল

খান ইমরান : বরিশাল প্রতিনিধি

 

পটুয়াখালী সদর উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের অর্ন্তগত তেলিখালী খালে একসময় নৌযান চলাচল করতো। খালের অভ্যন্তরের পানি নিয়ে কৃষক বিনা খরচে সেচে দিয়ে কৃষি চাষবাদ করতো পাশাপাশি এলাকার কয়েক হাজার মানুষ দৈনন্দিন কাজের জন্য একমাত্র ব্যবহার্য পানি উৎস এই খাল। যুগের আবর্তনে এবং জলবায়ু পরিবর্তন, দখল ও অপরিকল্পিত উন্নয়নের কারণে নিজের অস্তিত্ব হারাতে বসেছে ঐতিহ্যের এই খালটি, কচুরিপানায় ভরপুর থাকায় পানি ব্যবহার করতে পারছে না খালের দুই পাড়ের হাজার হাজার মানুষ। পানি দূষিত হয়ে ছড়াচ্ছে পানিবাহিত রোগ
নদী হয়ে তেলিখালী খালের সংযোগ দিয়ে ট্রলার, মালবাহী বড় বড় নৌকা চলাচল করতো, বিভিন্ন গ্রামের মানুষ ছোট ছোট নৌকা দিয়ে কৃষি পণ্য পরিবহন ও যাতায়াত করতেন। কচুরিপানায় খাল গ্রাস করায় ছোট ছোট নৌকাও চলাচল করতে পারছে না। পলি মাটি জমে শাখা খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় চাষাবাদের জমিতে পানি প্রবেশ করতে পারছে না। এর আগে যাও একটু জোয়ার ভাটার পানি প্রবাহ হতো তা এখন প্রায় বন্ধ রয়েছে। এতে ভোগান্তি আরও বেড়েছে । বর্জ্য বিভিন্ন জায়গায় ফেলে রাখার ফলে দুর্গন্ধ ও মশা-মাছিসহ বিভিন্ন রোগজীবাণুর প্রজননের সহায়ক হচ্ছে। খালে পানি চলাচল না করায় কচুরিপানা ও বিভিন্ন আগাছায় ভরে গেছে খালটিতে। খালপাড়ে গেলেই যে কারও নজরে পড়বে বিভিন্ন পোকামাকড়সহ বিষাক্ত সাপ খালে কচুরিপানা জমে পানি চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এতে ওই এলাকার কয়েকশ একর জমিতে আমন ও বেরোচাষ হুমকির মুখে পড়েছে। খালে পলি মাটি জমে থাকায় এবার আশাপাশের জমিতে আমনচাষ হয়নি।বোরো মৌসুমে বোরোচাষ নিয়েও কৃষক উদ্বিগ্ন। এলাকাবাসী অবিলম্বে কচুরিপানা অপসারণ করে খালে পানির গতিপ্রবাহ স্বাভাবিক করতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন । তবে এ বিষয়ে পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হাসানুজ্জামান জানান, সরকারের ডেল্টা প্ল্যানের আওতায় জেলার সব নদী ও খাল আগের মতো পানি প্রবাহ সচল করতে কাজ করা হচ্ছে এই নদীতেও পর্যায়ক্রমে কাজ করা হবে, কোনো খাল খনন থেকে বাদ দেওয়া হবে না পলি-মাটি জমে নাব্যতা হারিয়েছে তেলিখালী খাল । সকালে ভাটার শেষ মুহূর্তের দৈনন্দিন কাজের পানি সংগ্রহ করেছেন এক গৃহিনী । কচুরিপানায় কানায় কানায় ভরা তেলিখালী খাল

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ