আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

রাজশাহী কলেজ ইংরেজি  বিভাগীয় প্রধানের  অবসর ও বিদায়

 

 

সাব্বির আহম্মেদ চন্দ্রিমা, (রাজশাহী)প্রতিনিধি:

 

রাজশাহী কলেজ বাংলাদেশের মধ্যে একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। এই কলেজের ইংরেজি বিভাগের একজন বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর পীযূষ কান্তি ফোজদার। আর তিনি তার দীর্ঘ চাকরি জীবনের ইতি টেনেছেন।
তিনি অষ্টম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডার হিসেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করেন। তার এই সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি যেমন ছিলেন একজন ভালমানের শিক্ষক তেমনি ছিলেন একজন সংস্কৃতমনা মানুষ।
তার প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কলেজের অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান বলেন, প্রফেসর পিযুষ কান্তি ফৌজদার, বিভাগীয় প্রধান,ইংরেজি বিভাগ, রাজশাহী কলেজ -এর অাগামীকাল ১৫ জুন ২০২০ তারিখ সুদীর্ঘ চাকুরি জীবনের শেষ কর্মদিবস।তিনি শিক্ষা ক্যাডারে ৮ম বিসিএস – এর গর্বিত কর্মকর্তা।বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অত্যন্ত নিষ্ঠা,দক্ষতা ও সুনামের সাথে চাকুরি করেছেন।২০১৫ সালের ১৩ ডিসেম্বর রাজশাহী কলেজে যোগদান করে ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে একনিষ্ঠভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। সমসাময়িক কালে কলেজ পর্যায়ে ইংরেজি ভাষা সাহিত্যের একজন খ্যাতিমান শিক্ষক হিসেবে তিনি সুপরিচিত। শিক্ষকের পূর্বে মহান শব্দটি যুক্ত করে শিক্ষকতার পেশাকে যে সুমহান করা হয়, সে বিশেষণে অামরা কতজন অভিষিক্ত হতে পেরেছি তার পরিসংখ্যান জানা নেই তবে শিক্ষক হিসেবে প্রফেসর ফৌজদারের ক্ষেত্রে মহান শব্দটির যোগ বিন্দুমাত্র অত্যুক্তি হবেনা।সুপ্রাচীন ও রত্নগর্ভা রাজশাহী কলেজে শিক্ষকতা করা এক অনন্য পাওয়া।তাই হয়তো প্রফেসর ফৌজদার তাঁর বর্ণাঢ্য চাকুরিজীবনের মধ্যে রাজশাহী কলেজকে ভালবেসেছিলেন নিরতিশয়। তিনি একাধারে শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক, বিভাগীয় প্রধান ও কলেজের বিভিন্ন কমিটির দায়িত্বে থেকেও প্রতিদিন কমপক্ষে ২-৩ টি ক্লাস নিতেন।এটিই জাত শিক্ষকের প্রকৃত স্বরূপ। বিভিন্ন সূচকে রাজশাহী কলেজের ধারাবাহিক সুখ্যাতির পেছনেও তিনি রেখেছেন অনবদ্য ভূমিকা। অামরা কৃতজ্ঞচিত্তে তাঁর অসামান্য অবদানকে স্মরণ করছি। মহান শিক্ষকের বিদায়ে অামরা ব্যথাহত।রাজশাহী কলেজ পরিবারের পক্ষ হতে তাঁকে অভিবাদন জানাচ্ছি এবং তাঁর মঙ্গল কামনা করছি।
এছাড়াও ইংরেজি বিভাগের সকল শিক্ষকগণ তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন এর মাধ্যমে বিদায় জানান।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ