আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ই এপ্রিল, ২০২৪ ইং

পেকুয়ায় ব্যতিক্রমর্ধমী ফুটবল ম্যাচে পুরুস্কার আস্ত ছাগল

দেলওয়ার হোসাইন, পেকুয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের পেকুয়ায় ব্যতিক্রমর্ধমী এক ফুটবল ম্যাচে পুরুস্কার হিসেবে আস্ত একটি ছাগল তুলে দেন চ্যাম্পিয়ন দলের খেলোয়াড়দের হাতে । বিবাহিত বনাম অবিবাহিত ম্যাচেটিতে ১ গোলে বিজয়ী হয় অবিবাহিত দল ।

এই প্রীতি ফুটবল ম্যাচটি এলাকার নারী পুরুষ সকলের মাঝে বেশ উৎসাহ দেখা গেছে। পুরুস্কার হিসেবে জিতে নেয়া ছাগলটি উভয় দল মিলে রাতে নৈশ ভোজের আয়োজনও করে ।

পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে ভোলাইয়াঘোনা এলাকায় বিকাল ৩ টায় স্থানীয় গ্রামের বিলে ব্যতিক্রমর্ধমী এ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। গ্রামের মাঝা মাঝি বিলে ম্যাচটি চলাকালে নারী দর্শক ছিল দেখার মত । খেলার প্রথমার্ধে দু দল গোল শুন্য হলেও দ্বিতীয়ার্ধের শেষের দিকে বিবাহিত দলের নেটে অবিবাহিত দলের বল জড়িয়ে যায়,ফলে এক গোলে বিজয়ী হয় অবিবাহিত দল।

খেলার রেফারি দক্ষ পরিচালনায় অবিবাহিত দলের দুজন খেলোয়াড়কে হলুদ কার্ড প্রদর্শন করে সর্তক বার্তা দিয়ে জানান দেয় খেলায় অনিয়ম করা যাবেনা।

খেলার আয়োজক কমিটি ও অবিবাহিত দলে টিম লিডার মেহেদী হাসান জানান, আসলে আমরা বিবাহিত যুবকদের খেলা মুখি করার জন্য এ আয়োজন,

অনেকে বিবাহিত জীবনে সাংসারিক কাজে ব্যস্ত হয়ে যাওয়ায় অনেক ভাল মানের খেলোয়াড় মাঠে আসেনা তাদের খেলায় ফেরাতে আমাদের এ উদ্যোগ।

আস্ত ছাগল পুরুস্কার হিসেবে বাছাই করার বিষয়ে বিবাহিত দলের টিম লিডার মোঃ ইউনুছ জানান, খেলার পাশাপাশি খাওয়া দাওয়ার আয়োজন থাকা দরকার মনে করি,ছোটদের আবদার বড়রা ফেলতে পারেনা তাদের সাথে সময় দেয়াও হলো আনন্দও হলো এভাবে সবাই মিলে মিশে থাকতে চাই।

এসময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পেকুয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাহেদ ইকবাল, তিনি জানান,এলাকার যুব সমাজকে মাদক ও মোবাইল গেম থেকে দূরে রাখতে এধরনের আয়োজনের বিকল্প নেই,

ছোট বড় সবাই মিলে প্রতিযোগীতা মুলক আয়োজনে দুরত্ব কমে একে অপরের প্রতি ভ্রাতৃত্ববোধ বেড়ে বন্ধন সৃষ্টি হয় তাই আমরা এলাকার সকলে মিলে আগামীতে এধরনের আয়োজন চলমান রাখবো।

পেকুয়া ভোলাইয়াঘোনা এলাকার মুরব্বি জহিরুল আলম,আব্দুল কুদ্দুস, মাষ্টার ইদ্রিস,মাষ্টার শাহাব উদ্দিন,রাশেদুল কবিরসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ