আজ ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

বরিশালে ইলিশের ৫ অভয়াশ্রমে টানা ২ মাস মাছ ধরা নিষিদ্ধ

খান ইমরান , বরিশাল প্রতিনিধি

 

ইলিশের পাঁচ অভয়াশ্রমে সব ধরনের মাছ ধরা রবিবার (১ মার্চ) থেকে ৩০ এপ্রিল দুই মাস বন্ধ থাকবে। জাটকা ইলিশ (১০ ইঞ্চির কম সাইজ) পূর্ণাঙ্গ ইলিশে পরিণত হওয়া নিশ্চিত করতে মৎস্য অধিদপ্তর প্রতিবছর দুই মাস ৬ অভয়াশ্রমে মাছ ধরা বন্ধ ঘোষণা করে। তার মধ্যে আন্ধারমানিক নদীর ৪০ কিলোমিটারে ২ মাসের নিষেধাজ্ঞা পালিত হয়েছে গত বছরের ১ নভেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর। আজ ১ মার্চ থেকে অপর ৫টিতে দুইমাসের নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে।

মৎস্য অধিদপ্তর বরিশাল দপ্তরের মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস বলেন, বরিশালের হিজলা ও মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা সংলগ্ন মেঘনার শাখা-প্রশাখা নিয়ে গঠিত ষষ্ঠ অভয়াশ্রমে গত বছর (২০১৯) থেকে দুই মাসের নিষেধাজ্ঞা আরোপিত হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা ৫টি অভয়াশ্রমের সীমানা হচ্ছে- বরিশাল সদর উপজেলার কালাবদর নদীর হবিনগর পয়েন্ট থেকে মেহেন্দিগঞ্জের বামনীরচর পয়েন্ট পর্যন্ত ১৩ দশমিক ১৪ কিলোমিটার, মেহেন্দিগঞ্জের গজারিয়া নদীর হাট পয়েন্ট থেকে হিজলা লঞ্চঘাট পর্যন্ত ৩০ দশমিক কিলোমিটার, হিজলার মেঘনার মৌলভীরহাট পয়েন্ট থেকে মেহেন্দিগঞ্জ সংলগ্ন মেঘনার দক্ষিণ-পশ্চিম জাঙ্গালিয়া পয়েন্ট পর্যন্ত ২৬ কিলোমিটার।

চর ইলিশার মদনপুর থেকে ভোলা জেলার চরপিয়াল পর্যন্ত মেঘনা নদীর শাহাবাজপুর চ্যানেলের ৯০ কিলোমিটার, ভোলা জেলার ভেদুরিয়া থেকে পটুয়াখালী জেলার চররুস্তুম পর্যন্ত তেঁতুলিয়া নদীর ১০০ কিলোমিটার, চাঁদপুর জেলার ষাটনল থেকে লক্ষ্মীপুর জেলার চর আলেকজেন্ডার পর্যন্ত মেঘনা নদীর ১০০ কিলোমিটার এবং শরীয়তপুর জেলার নুরিয়া থেকে ভেদরগঞ্জ পর্যন্ত নিম্ন পদ্মার ২০ কিলোমিটার নদ-নদী।

অধিদপ্তরের বরিশালের পরিচালক আজিজুল হক বলেন, অভয়াশ্রমে নিষেধাজ্ঞার মূল উদ্দেশ্য হলো জাটকা রক্ষা করে বড় ইলিশে পরিণত হওয়ার সুযোগ করে দেওয়া। নিষেধাজ্ঞার মধ্যে অন্য মাছ আহরণের অজুহাতে জেলেরা নদীতে নেমে যাতে জাটকা নিধন করার সুযোগ না পায়। সেজন্য অভয়াশ্রম জলসীমার মধ্যে সব ধরনের মাছ আহরণ বন্ধ রাখা হয়। নিষেধাজ্ঞা কার্যকরে জেলে পাড়াগুলোতে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ