আজ ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই নভেম্বর, ২০২০ ইং

স্ত্রী ও কন্যাকে  পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা 

 

 

 

খান ইমরান : বরিশাল প্রতিনিধি :  

 

 

বরিশাল কাউনিয়া এলাকায় নিজের স্ত্রী ও মেয়েকে কুপিয়েও পিটিয়ে রক্তাক্ত করল সন্ত্রাসী স্বামী বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার (২৪ জুন ) দুপুর ১ টার সময় তার নিজ গৃহে বসে এমন হামলা চালানো হয় বলে জানা গেছে। আহত স্ত্রী ও মেয়ে হলো ওই থানার ৭ ন; পলাশপুর এলাকার মোসা: শিউলী বেগম ও তার কন্যা শান্তা।

আহতের স্বজনেরা জানান, দীর্ঘ ২৫/৩০ বছর পূর্বে শিউলী বেগমের সাথে সামাজিক ভাবেই বিবাহ হয় মোঃ এনায়েত হাওলাদারের। দাম্পত্যজীবনে তাদের একটি মেয়ে ও ছেলের জন্ম হয় । তারা দীর্ঘ বছর সুখে শান্তিতে থাকলেও সন্ত্রাসী স্বামী এনায়েতের কারণে স;সারের মধ্যে অশান্তি লেগেই থাকত। সন্ত্রাসী স্বামী এলাকায় ভান্ডারী নামেও পরিচিত। তার বিরুদ্ধে একাধিক নারীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের সাথে জড়িত বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি কিছু দিন পূর্বে স্বামী এনায়েত কাউকে না জানিয়ে গোপনে রাজাপুর থানার বাসিন্দা মোঃশাহাবুদ্দিনের মেয়ে মোসাঃ হাজেরা বেগমকে বিয়ে করে। বিবাহের কথা জানাজানি হলে এনায়েতের বড় মেয়ে শান্তা (১৭)কান্না ভেঙে পড়ে। তার বৃদ্ধ বাবার এমন কান্ডে সামাজিক ভাবে হেয়ো প্রতিপন্ন হয়ে এলাকায় মুখ দেখাতে পারছেনা। এনিয়ে পরিবারের ভিতরে দ্বন্দ্ব বিরাজমান ছিলো। ঘটনার দিন এনায়েত তার স্ত্রী শিউলীকে ঘর থেকে বের করার জন্য মারধর করতে থাকে । মাকে বাচাঁতে মেয়ে শান্তা ছুটে আসলে তাকেও লাঠি দিয়ে মেরে রক্তাক্ত করে। আহতদের ডাক-চিত্কার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসলে ঘাতক এনায়েত পালিয়ে যায় । পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে বর্তমানে তারা শেবাচিমে চিকিৎসাদিন অবস্থায় রয়েছেন ।

এ নিয়ে কাউনিয়া থানায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে বলেও আহতদের স্বজনরা সাংবাদিকদের আরোও জানান।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ