আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ ইং

গোদাগাড়ীতে মাদক মামলায় জামাইকে ফাঁসিয়ে দিল শ্বশুর

 

গোদাগাড়ী (রাজশাহী) উপজেলা প্রতিনিধিঃ

 

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মাদক মামলায় জামাইকে ফাঁসিয়ে দিয়েছে শ্বশুর। স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা যায় মঙ্গলবার(৯ জুন) দুপুর আড়াইটার উপজেলার চর বয়ারমারী হবুপাড়া ব্রিজের কাছে হাসিম(২৬)নামের এক যুবককে ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ আটক করে থানা পুলিশ। আটককৃত হাসিম পার্শবর্তী গ্রাম চর কোদালকাটি গ্রামের মহিউদ্দীনের ছেলে ও চাপাইনবাবগ্ঞ্জ সদর উপজেলা আলাতুলী ইউনিয়নের সদস্য (মেম্বার) মারফত আলীর জামাই। সীমান্তের একাধিক সুত্রে জানাই আটককৃত হাসিম মোটরসাইকেলে ভাড়ায় যাত্রী বহন করার কাজ করত। তার শ্বশুর মারফত আলী ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার লালগোলা থানার চাটাইডুবি গ্রামের কবিরের সঙ্গে মাদকের কারবার রয়েছে। আর ভারত থেকে পাঠানো প্রায় ৬ কেজি হেরোইন আত্মসাত করতেই জামাইকে হেরোইন দিয়ে ধরিয়ে দিলেন আপন শ্বশুর মারফত আলী। আটককৃত হাসিম পুলিশকে জানাই তার শশুর একটি ব্যাগ রেলবাজার খেয়াঘাটের কাছে পৌছে দিতে বলে। এরপর চর বয়ারমারী হবুপাড়া ব্রিজের কাছে আসলে পুলিশ হাসিমের কাছে থাকা ব্যাগ তল্লাশী করে হেরোইন উদ্ধার করে গোদাগাড়ী থানার এসআই আব্দুল মান্নান। এ সময় হাসিম দাবি করে আসছিল ব্যাগটি তার নয়। সূত্র গুলি আরো জানায়, পরিকল্পিতভাবে হাসিমকে ধরিয়ে ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ীকে জানানো হয় পাঠানো হেরোইনগুলি পুলিশ ধরা পড়েছে। আর এমন নাটক সাজালেও মারফত আলীর পরিকল্পনা ফাস হয়ে যায়। তবে মারফত আলী তার বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। এ ঘটনাটি জানাজানির পর একটি গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা তদন্তে নেমেছে। গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) খাইরুল ইসলাম বলেন, এই ঘটনাটি আমি শুনেছি। তবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ