আজ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

আর্সেনিকাম অ্যালবাম৩০ সেবনে কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু ঝুঁকি কমায়- ডাঃ অজিত বসাক

 

রনজিত কুমার পাল ( বাবু)
নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানী ঢাকার সন্নিকটে ধামরাই উপজেলার স্বনামধন্য বিশিষ্ট হোমিও চিকিৎসক ডাঃ অজিত কুমার বসাক এর মতে আর্সেনিকাম অ্যালবাম৩০ (arsenicum album 30) করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ এর সংক্রমণে মৃত্যু ঝুঁকি কমায়।
নোভেল করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে এখনো কোন ঔষধ বা ভ্যাকসিন তৈরি হয়নি।
কিন্তু সারাবিশ্বের চিকিৎসক ও গবেষকরা মহামারী করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধ কল্পে
ঔষধ ও ভ্যাকসিন তৈরি করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ আতন্কে আতন্কিত বাংলাদেশের বেশির ভাগ মানুষ। করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণে আক্রান্ত রোগীদের বিচ্ছিন্ন চিকিৎসা ব্যবস্হা ছাড়া আর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি।
এতদ্ অঞ্চলের (সাভার -আশুলিয়া, ধামরাই- মানিকগঞ্জ) এলাকার স্বনামধন্য বিশিষ্ট হোমিও চিকিৎসক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক ডাঃ অজিত কুমার বসাক গণমাধ্যম কর্মীদের জানান- তিনি প্রায় চার দশক যাবৎ এতদ্ অঞ্চলের রোগীদের বিভিন্ন রোগের হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছে। এতে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসায় বেশীর ভাগ রোগী আরোগ্য লাভ করে সুফলও পেয়েছে।
তিনি করোনা কাল শুরু থেকে করোনার বিস্তার রোধে
এতদ্ অঞ্চলের বিভিন্ন শ্রেণী- পেশার মানুষকে হোমিওপ্যাথি ঔষধ আর্সেনিকাম অ্যালবাম৩০ ব্যবহারের পরামর্শ প্রদান করেন এবং সেই সাথে সে আর্সেনিকাম এ্যালবাম৩০ ঔষধ ধামরাইয়ের সাংবাদিক ও সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের মাঝে দুই হাজার ড্রোজ/ড্রাম বিনামূল্যে বিতরন করেছেন এ’ছাড়াও পুলিশ প্রশাসনকে দিয়েছেন ২৮০০ ড্রোজ/ড্রাম।
হোমিওপ্যাথির এ’ঔষধ এর সুফল হলো প্রিভেনশন বা প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। যদি কোন ব্যক্তি করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণে আক্রান্ত হলে আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ ডোজ সেবনে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি কমে যায় বলে জানান ডাঃ অজিত কুমার বসাক ।
তিনি আরো জানান- হোমিওপ্যাথি ঔষধ আর্সেনিকাম অ্যালবাম৩০ ( arsenicum album30) সেবম করলে জিংক ও ভিটামিন-ডি দেহে বাড়িয়ে দেয়, কারণে দেহে চর্বি নষ্ট করে তার দেহের কোভিড-১৯ এর জীবাণু ধ্বংস করার প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
ঔষধ সেবনের নিয়ম- তিনদিন খালি পেটে খাওয়ার আধা ঘণ্টা আগে চার বড়ি করে সেবন করতে হবে ।

উল্লেখ্য করোনা কাল শুরু হওয়ার পর থেকে ৫ই জানুয়ারি-২০২০খ্রীঃ থেকে ডাঃ অজিত কুমার বসাক বিনামূল্যে হোমিওপ্যাথি ঔষধ আর্সেনিকাম অ্যালবাম৩০ এতদ্ অঞ্চলের মানুষের মাঝে বিতরণ করে যাচ্ছেন।
এই ঔষধ সেবনে মানব দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয় । এটি ইটালি ও ভারতের আইয়ুস অনুমোদিত।
এই রোগের প্রাথমিক সিমথম- জ্বর হওয়া, গলা ব্যাথা, ঠান্ডা লাগা,হাঁচি ও কাশি হওয়া , শরীর ব্যাথা হওয়া, অসহনীয় পিপাসিত হওয়া, শ্বাস কষ্ট হওয়া, ছটফটানি করা, মৃত্যু ভয় হওয়া, পাকাশয়ে অত্যন্ত জ্বালা করা, কলেরা, রক্ত আমাশা প্রভূতি।
এ’প্রসঙ্গে ডাঃ অজিত কুমার বসাক আরো বলেন মহামারী করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব এর পর থেকে এর সংক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সমাজের সর্বসাধারণ এর মাঝে চিকিৎসা সেবা চালিয়ে যাচ্ছি অবিরাম ভাবে শুধু আমি নই আমার পরিবারের অন্যান্য চিকিৎসকগন করোনা কালে ঘরে বসে নেই জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে।আমার পরিবারের চিকিৎসকগন- ডাঃ লতা রাণী বসাক (হোমিওপ্যাথি), ডাঃ অরবিন্দ বসাক (এমবিবিএস) , ডাঃ ঊর্মি বসাক (এমবিবিএস), ডাঃ সোমনাথ সরকার সুমন (এমবিবিএস),
আমরা মানব সেবায় নিয়োজিত থেকে মহামারীর সময়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছি আগামীতেও তা অব্যাহত রাখব ।
সর্বসাধারণের প্রতি তিনি বিশেষ অনুরোধ রেখে বলেন- আপনারা সবাই স্বাস্থ্য বিধি ও সরকারি নির্দেশ মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। করোনার কারণে আতন্কিত না হয়ে সচেতন হোন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ