আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

চাঁদপুরে ৭৫ হাজার মানুষ পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা

 

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুর জেলায় করোনা ভাইরাসজনিত দুর্যোগে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা (২৫০০ টাকা) পাচ্ছে ৭৫ হাজার লোক।
যাদের নামের তালিকা এ কার্যক্রমের আওতায় ডিজিটাল সফ্টওয়ারে প্রেরণ করা হয়েছে।

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর সদরে ১১ হাজার ২শ’ এবং পৌরসভায় ৪ হাজার, ফরিদগঞ্জে ১০ হাজার ৩শ’ এবং পৌরসভায় ১ হাজার, হাইমচরে ৫ হাজার ১শ’, হাজীগঞ্জে ৭ হাজার ৭শ’ এবং পৌরসভায় ১ হাজার ৮শ’, কচুয়ায় ১০ হাজার ২শ’ এবং পৌরসভায় ৮শ’, মতলব উত্তরে ৯ হাজার ৫শ’ এবং পৌরসভায় ১ হাজার’, মতলব দক্ষিণে ৪ হাজার ২শ’ এবং পৌরসভায় ১ হাজার ৬শ’, শাহরাস্তিতে ৫ হাজার ৮শ’ এবং পৌরসভায় ৮শ’ সহ সর্বমোট ৭৫ হাজার লোক এ মানবিক সহায়তা পাচ্ছে।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর পৌরসভার সচিব আবুল কালাম ভূঁঞা জানান, পৌর এলাকার ১৫টি ওয়ার্ডে উপকারভোগীর তালিকা তৈরি হয়ে গেছে। ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণ এ তালিকায় প্রতি ওয়ার্ডে গড়ে ২শ’ ৬৬ জনকে অন্তর্ভুক্ত করিয়েছেন। তবে নামের তালিকাটি চাইলে তিনি জানান, খুব কম সময়ে মাত্র ২/৩ দিনের মধ্যে এ নামের তালিকা করতে হয়েছে। আর অতি দ্রুততার সাথে নামের তালিকা জমা দিতে হয়েছে।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ের অফিস সহকারী মোঃ আখতারুজ্জামান জানান, বিষ্ণুপুরে ৯শ’ ৬৭, আশিকাটিতে ৮শ’ ৬১, কল্যাণপুরে ৫শ’ ৯৪, শাহমাহমুদপুরে ৮শ’ ৮৫, রামপুরে ৮শ’, মৈশাদীতে ৫শ’ ৯৯, তরপুরচন্ডীপুরতে ৫শ’ ১২, বাগাদীতে ১ হাজার ৯৯, বালিয়ায় ১ হাজার ৫১, লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নে ১ হাজার ৩শ’ ১৭, ইব্রাহীমপুরে ৫শ’ ৩৯, চান্দ্রায় ৯শ’ ৭১, হানারচরে ৪শ’ ১১ এবং রাজরাজেশ্বরে ৫শ’ ৯৪ জন এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন।

এ ব্যপারে চাঁদপুর সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলা পরিসংখ্যান অফিস হতে প্রাপ্ত ২০১১ সালের আদম শুমারীর হিসেব অনুযায়ী ইউনিয়নের জনসংখ্যার ভিত্তিতে ৭০%, অসহায় ২০% (সমহার), ১০% নদীভাঙ্গন হারে বরাদ্দকৃত উপকারভোগী ইউনিয়ন ওয়ারী বিভাজন করে তালিকা করা হয়েছে।
তবে তিনি ইউনিয়নওয়ারী উপকারভোগীর নামের তালিকা চাইলে প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান।

১৮ই মে সোমবার এ ব্যাপারে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা কেবিএম জাকির হোসেন জানান, করোনা ভাইরাসজনিত সংক্রামক ব্যাধির বিস্তার লাভ করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা কার্যক্রমের পরিসর বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার জনসংখ্যা, দারিদ্র্যের হার, নদীভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত ইত্যাদি বিবেচনায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক উপকারভোগী পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হবে।

বিভিন্ন স্থানে নামের তালিকায় স্বজনপ্রীতি, অনেকের আইডিকার্ড বা নাম ভিন্ন হলেও ফোন নাম্বার একজনেরসহ নানা অনিয়ম প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি জানান, পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে কিছু উপকারভোগীর নামের তালিকায় সমস্যা পাওয়া গেছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতনকে জানিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
তবে ঈদের আগেই এ টাকা স্ব-স্ব ফোন নাম্বারে চলে যাওয়ার কথা রয়েছে।

এ ব্যাপারে সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপণা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোঃ শাহ্ কামাল এক সভায় বলেছেন, মানুষের জন্যে বরাদ্দকৃত সরকারি ত্রাণ সেবায় প্রশাসনের কেউ কিংবা কোনো জনপ্রতিনিধি বা সংশ্লিষ্ট কেউ যদি অনিয়ম করার চেষ্টা করে, ওই সমস্ত অনিয়মকারীদের কোনোভাবেই ছাড় দেয়া হবে না। অভিযোগ পেলেই দ্রুত তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ