আজ ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

লালমনিরহাটের এক পরিবারের চিকিৎসক সন্তান করোনায় আক্রান্ত

 

পরিমল চন্দ্র বসুনিয়া,লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাসের কারনে বাংলাদেশসহ উদ্বেগ গোটা বিশ্ব।এর এখন পর্যন্ত কোনো ভেকসিন আবিষ্কার হয়নি।তাই এর আক্রমণ থেকে বাঁচতে ব্যাক্তিগত সচেতনা খুবেই জরুরী ঠিক ততটাই প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা সেবার।

চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, লালমনিরহাট হাতীবান্ধা উপজেলা নওদাবাস ইউনিয়নের এক পরিবারের সন্তান ডা:আব্দুল্লাহ আল তানভীর তালুকদার।তিনি দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত রয়েছেন।

সূত্রে জানা যায়,তিনি দিনাজপুর জেলার করোনার জন্য নিবেদিত প্রান ডেডিকেটেড চিকিৎসক টিমের সদস্য।এছাড়াও জেলার বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ মেডিকেল অফিসার রোগ নিয়ন্ত্রণ(MODC) এর দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এ ব্যাপারে ডা:আব্দুল্লাহ আল তানভীর তালুকদার তার করোনায় আক্রান্ত নিশ্চিত করেন।তিনি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানান,গত ৩ মাস ধরে বাইরে থেকে বীরগঞ্জে আগত সকল ব্যাক্তিগনের হোম কোয়ারান্টাইন নিশ্চিত করা।তাদের চিকিৎসা সেবা করে আসছি।তাছাড়াও কোনো সন্দেহজনক করোনা রোগীর নমুনা সংগ্রহ টিমের নেতৃত্ব দিয়ে আসছি।

গত (০৯ মে) আমরা রুটিন মাফিক নিজেদের নমুনা সংগ্রহ করে পাঠাই যা পরদিন (১০ মে) পজিটিভ আসে।দিনাজপুরে আমি সম্ভব প্রথম চিকিৎসা হিসেবে আক্রান্ত হয়েছি। বর্তমানে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ আইসোলেশনে আছি।তবে,এখন পযন্ত আমার কোনো ধরনের লক্ষ দেখা যায় নি। এখানে আমার সেবা যত্নের কোন কমতি হচ্ছে না।

আমার স্বাস্থ্য প্রশাসক জনাব ডাঃ আনোয়ার উল্যাহ স্যারের কেয়ারিং মনোভাব এবং বলিষ্ঠ নেতৃত্ব আমার মনোবল অনেকগুন বৃদ্ধি করেছে। তাই বলতে দ্বিধা নাই যে আমার স্বাস্থ্য প্রশাসক জনাব ডাক্তার মো আনোয়ার উল্যাহ স্যার আমার কাছে আমার পিতার ভিন্ন রূপ ।।
তাছাড়া দিনাজপুর সিভিল সার্জন অফিসার জনাব ডাঃ মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস স্যার ,বীরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন এর ইউ এন ও মহোদয় জনাব ইয়ামিন হোসেন স্যার, এসি ল্যান্ড জনাব রমিজ আলম সাহেব ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জনাব সারোয়ার মুর্শেদ অনিক ভাই আমার সবসময় খোজখবর নিচ্ছেন।

তিনি হাতীবান্ধা উপজেলাবাসীর উদ্দেশ্য বলেন,আসি যাদের সংস্পর্শে এসেছি তাদের সবার(মা, বাবা,ভাই,বোন,স্ত্রী,সন্তান) নমুনা নমুনা পরিক্ষা করাই তাদের রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে।তাই আমার পরিবারকে কেউ অমানবিকতকর দৃষ্টিতে দেখবেন না। সকলে আমাকে দোয়া করবেন,যাতে সুস্থ হয়ে আবার পুরোদমে করোনা যুদ্ধে নামতে পারি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ