আজ ২৬শে অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১১ই ডিসেম্বর, ২০২৩ ইং

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যত তোমাদের হাতে- কুবি উপাচার্য

কুবি প্রতিনিধি:

‘নাটক সমাজের চিত্র তুলে ধরে। প্রতিটা নাটকের একটা বার্তা থাকে।প্রত্যেকটা নাটক যা দেখানো হয়েছে, এটা শুধু নাটক না, এটা অনেক দিনের কঠোর পরিশ্রম, প্যাশন আর ডেডিকেশনের ফলাফল। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবিষ্যত তোমাদের হাতে’ বলে মন্তব্য করেন
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এফ এম আবদুল মঈন।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র নাট্য সংগঠন থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত আন্তঃবিভাগ নাট্য প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন। বুধবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা থেকে প্রতিযোগিতাটি শুরু হয়ে রাত ১০ টায় ফলাফল ঘোষণার মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শেষ হয়।

এ প্রতিযোগিতায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় রানার আপ হয়েছে বাংলা বিভাগ, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ। এছাড়া সেরা অভিনেতা নির্বাচিত হয়েছেন প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের মোহাম্মদ ইয়াকুব।

ফলাফল ঘোষণার আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয়টি বিভাগ তাদের নির্ধারিত নাটক প্রদর্শন করে। এরপর থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হান্নান রহিম সঞ্চালনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শক ও নির্দেশনা কার্যালয়ের পরিচালক ড. মোহা: হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আজকের মঞ্চায়িত প্রত্যেকটি নাটকে একটি ম্যাসেজ রয়েছে, সেই ম্যাসেজ গুলো আমরা যদি একত্রিত করি তাহলে দেখতে পাবো বর্তমান সমাজের কোন একটা খন্ড চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। নাটকের প্রধান কাজ হলো সমাজের অন্ধকারকে দূর করা। নাটক হতে পারে সমাজ পরিবর্তনের, সংস্কারের মূল হাতিয়ার।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও থিয়েটার কুবির উপদেষ্টা এন এম রবিউল আউয়াল চৌধুরী বলেন, ‘নাটক একটা কমিউনিকেশন, যেখানে পারফর্মারদের সাথে দর্শকের সরাসরি যোগাযোগ হয়। থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে ধন্যবাদ প্রতিবছর এরকম আয়োজন করার জন্য।’

তিনি আরো বলেন, ‘থিয়েটার লিডারশিপ শেখায়,থিয়েটার আমাদেরকে কথা বলা শেখায়। আমরা সবাই মিলে এগিয়ে নিয়ে যাবো কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে। ‘

থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ বলেন, ‘প্রতিবছরের ধারাবাহিকতায় এ বছরও আমরা এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি। সামনের দিনেও আমাদের এই চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এই প্রতিযোগীতাকে সাফল্যমন্ডিত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সবগুলো বিভাগকে এভাবে এগিয়ে আসার অনুরোধ রইলো।’

এছাড়া এ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন থিয়েটার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. সোহরাব উদ্দিন সৌরভ, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. নাহিদা নাহিদ ও উদীচী কুমিল্লা জেলার সভাপতি ফরিদ উদ্দিন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ