আজ ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

মহান বিজয় দিবসে রাস্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে প্রথম ভোরে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী সূর্য সন্তানদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পরেই জনসাধারণের জন্য উম্মুক্ত করা হয় স্মৃতিসৌধ। এর পর থেকেই জনসমুদ্রে পরিনত হয় জাতীয় স্মৃতিসৌধ।
বেলা বাড়ার
সাথে সাথে বাড়তে থাকে মানুষের ঢল। একের পর এক রাজনৈতিক সংগঠন থেকে শুরু করে অপামর জনসাধারন বীর শহীদদের জানাতে থাকে তাদের আবেগী শ্রদ্ধা।

দিবসটি ঘিরে আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখা রাজৈতিক নেতাকর্মীরা বিভন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে জয়বাংলা ধ্বনিতে মুখোরিত করে তোলে সৌধ প্রাঙ্গন।
সর্বস্তরের মানুষের ঢল নেমেছে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে। বেলা যতই বাড়ছে ততই ফুলে ফুলে ভরে উঠতে শুরু করেছে শহীদ বেদি।

সকালে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী জাতীর বীর সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষ করে সৌধ প্রাঙ্গণ ত্যাগ করে চলে যাওয়ার পরপরই সর্বসাধারণের জন্য সৌধের ফটক খুলে দেওয়া হলে সর্বস্তরের মানুষের এই ঢল নামতে শুরু করে।

এর আগে ভোরের আলো ফোটার আগেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দলের সদস্যসহ নানা বয়সের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন ও ফুল নিয়ে সৌধ প্রাঙ্গণের বাহিরে অপেক্ষমান অবস্থায় দাড়িয়ে থাকেন।

সর্বসাধারণের প্রবেশের জন্য সৌধের ফটক খুলে দেওয়ার পরপরই তারা তাদের ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে সারিবদ্ধভাবে শহীদ বেদির দিকে এগিয়ে যান। এবং সু-শৃংখলভাবে শহীদ বেদিতে ফুল দিয়ে জাতীর বীর সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন গণবিশ্ববিদ্যালয়, আশুলিয়া প্রেস ক্লাব, সাভার প্রেস ক্লাব, বাংলাদেশ আনসার ভিডিপি, বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (বিপিএটিসি), বিভিন্ন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়, এনজিও প্রতিষ্ঠান সহ নানা সরকারি ও বে-সরকারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানানো সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ