আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ ইং

চাঁদপুরে কৃষককের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার বিতরণ করলো উপজেলা পরিষদ

 

ইব্রাহীম খলীল সবুজ – চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুর সদর উপজেলায় ধান কাটার জন্য শ্রমিক সংকট মোকাবেলায় এবং সঠিক সময়ে জমির ধান কেটে ঘরে তোলার লক্ষ্যে সরকারি ভর্তুকি মূল্যে কৃষকদের মধ্যে কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন তুলে দেয়া হয়েছে।

উপজেলায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উদ্যোগে একটি কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন কৃষকের হাতে তুলে দেয়া হয়।
বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল দুপুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এক কৃষককের হাতে মেশিনের চাবি তুলে দেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম দেওয়ান নাজিম ও উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা।

উপজেলার কমারডুগি আলুমুড়া গ্রামের কৃষক আব্দুল বারী পাটওয়ারীর হাতে এ কম্বাইন হারভেস্টার মেশিনের চাবি তুলে দেওয়া হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আয়েশা আক্তারসহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আয়েশা আক্তার বলেন, কৃষকরা যাতে সঠিক সময়ে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারেন সে লক্ষ্যে সরকার ভর্তুকি মূল্যে কৃষকদের কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন দেয়া হয়েছে ।

এ মেশিন দিয়ে শুধু ধান কাটা নয়, একই সঙ্গে মাড়াই, পরিষ্কার ও সংগ্রহ করা যায়। সনাতন পদ্ধতিতে ধান কেটে কৃষকদের ধান উৎপাদনে তেমন বেশি লাভ হতো না। খরচ পুষিয়ে অনেক ক্ষেত্রেই তাদের লোকসানের মুখে পড়তে হতো। কারণ ধানের কাটার মজুরি খরচ, বাজার দর ও উৎপাদনের উপর নির্ভর করতো লাভ কেমন হবে। কিন্তু দিন বদল হয়েছে।
এখন কৃষি ক্ষেত্রেও এসেছে আধুনিকতার ছোঁয়া। এখন চাঁদপুর সদরের মাটিতেও ছড়িয়ে পড়েছে ধান কাটার আধুনিকতা।

তিনি আরো জানান, জমি চাষে গরুর বদলে ব্যবহৃত হচ্ছে পাওয়ার টিলার ও ট্রাক্টর আর ধান কাটতে ব্যবহৃত হচ্ছে কম্বাইন্ড হারভেস্টার। বিভিন্ন সময়ে কৃষকরা ধান কাটার সময় পড়তে হতো শ্রমিক সমস্যায়। খবচও হতো অধিক টাকা। পড়তে হতো লোকসানে। এখন সব কিছুতেই আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। সময় ও অর্থ দুটোই কম লাগছে কৃষকের, ফলে একই জমিতে খুব সহজেই অন্য ফসল করা যায়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ