আজ ১২ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং

জাবির সামাজিক সংগঠন ইচ্ছা’র উদ্যোগে কুড়িগ্রামের ভোগডাঙ্গায় ঈদ উপহার বিতরণ

জাবি প্রতিনিধি:

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক সংগঠন Inspire Care & Cultivate Human Aid (ইচ্ছা) এর উদ্যোগে কুড়িগ্রামের ভোগডাঙ্গায় খাসির মাংস বিতরণ করা হয়।

১০ জুলাই ২০২২ রবিবার ২ টি খাসি কোরবানি করে ২৫ টি অসহায়, দরিদ্র পরিবারের মাঝে এই মাংস বিতরণ করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের
ইংরেজি ৪৮ ব্যাচের শিক্ষার্থী মেহেদী মামুন সহ আরো অনেকে।

এ সময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক সোহেল আহমেদ বলেন, ইচ্ছা’র এই মহৎ উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই।

ঈদুল আযহাতে আমাদের দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মানুষ সুনামগঞ্জ, সিলেট এরিয়া ও কুড়িগ্রামে বন্যায় আক্রান্ত হয়ে আছে। ইচ্ছা যেভাবে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে তা খুবই প্রশংসার দাবিদার।

তোমরা এই ধরনের কল্যাণ মূলক কর্মকান্ড চালাবে দেশের মানুষের জন্য, সৃষ্টির সেবা করা খুবই মহৎ একটি কাজ। ইচ্ছা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, অসহায় মানুষের পাশে এবং বন্যার সময় অন্তত কিছু মানুষের,

যাদের কাছে তোমরা খাবার বা ত্রাণ বা কোরবানির গোশত দিয়েছো তা কিছুটা হলেও কয়েকটা পরিবারের মাঝে আনন্দ এনে দিয়েছে এই কষ্টের মধ্যে।

আমি ইচ্ছা’র সাথে যুক্ত হতে পেরেছি এটাই আমার ভালো লাগা। ইচ্ছা সংগঠনকে অনেক অনেক ধন্যবাদ এবং বিভিন্নভাবে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদেরকেও ধন্যবাদ।

ইচ্ছা’র সভাপতি মেহেদী হাসান (চারুকলা ৪৭ ব্যাচ) বলেন, রাস্তায় একজন অসহায় মানুষ যখন সাহায্য চায় অনেকেই এড়িয়ে চলে আসি আমরা। সৃষ্টিকর্তা চাইলে তাদের জায়গা’য় আমাদেরও রাখতে পারতো ।

একটাবার নিজের অবস্থান থেকে সরে গিয়ে তাঁদের অবস্থানের কথা ভাবুন তখনি তাদের কষ্টটুকু উপলব্ধি করতে সক্ষম হবেন ।
আমরা সবাই অসহায় দরিদ্র মানুষের সাহায্যে এগিয়ে যাবো এবং সবাইকে এগিয়ে যেতে আমন্ত্রণ জানাবো ।

ঈদের আগে ৮ জুলাই আমরা জাবির আশেপাশে অসহায় মানুষদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছিলাম।

এবার ঈদের দিন প্রথমবারের মত আমরা কুড়িগ্রামের অসহায় মানুষদের খাসির মাংস বিতরণ করেছি।
অধ্যাপক সোহেল আহমেদ স্যার ও মেহেদী মামুন এর প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ।

সাধারণ সম্পাদক জাকিয়া সুলতানা পিংকি (পরিসংখ্যান ৪৮ ব্যাচ) বলেন, আমরা যখন যেভাবে পারছি অসহায় মানুষের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার আমাদের সামাজিক সংগঠন ইচ্ছা থেকে প্রথমবারের মতো ঈদুল-আযহাতে কুড়িগ্রামে অসহায় মানুষদের মাঝে কুরবানীর গোশত বিতরণ করা হলো।

আপনাদের সহযোগিতা ছাড়া আসলে আমরা কিছুই করতে পারতাম না। যারা আমাদের সহযোগিতা করেছেন তাদেরকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ এবং আশা করব যাতে এভাবেই আপনাদেরকে সবসময় আমাদের পাশে পাই।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ