আজ ১০ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

যারা বটমলেস বাস্কেট বলতো তারাই আজ বলছে সম্ভবনাময় বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বটমলেস বাস্কেট বলে যারা আমাদের বিদ্রুপ করতো তারাই আজকে আমাদের বলে সম্ভাবনাময় বাংলাদেশ। এটার জন্য যে দক্ষতা, দেশ্বপ্রেম ও যে ভবিষ্যতে দুরদর্শী নেতৃত্ব দরকার তা আমারদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আজকে আমরা সেই জায়গায় গিয়েছি বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি।

রোববার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে তিনি ধামরাইয়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ইফাদ ইন্ডাষ্ট্রিয়াল পার্কে এসব কারখানার বিভিন্ন ইউনিট ঘুরে দেখে পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অসম্ভবকে সম্ভব করে যাচ্ছেন। তিনি বলেছিলেন ২০০৮ যদি এবার আমরা নির্বাচিত হই। আমরা নির্বাচিত হয় পাল্টে দিবেন বাংলাদেশকে। যথার্থ ভাবেই সেই সারা বাংলাদেশে আজকে আমরা উন্নয়নের রুল মডেল যে তৈরি হয়েছে তার নিদর্শনা স্বরুপ আজেকর এই কারখানার অগ্রগতি।

প্রধানমন্ত্রী জনগনকে বুঝিয়ে দিয়েছেন৷ তিনি যা বলেন তাই করেন৷ তিনি থাকলেই দেশ এগিয়ে যাবে। অন্ধকার থেকে আলোকিত বাংলাদেশের ঘোষণা দিয়েছেন সেটা তিনিই করতে পারবেন।

আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি বলেন, যারা বটমল্যাস বাসকেট বলে আমাদের বিদ্রুপ করতো। আজকে তারাই বলে সম্ভবনাময় বাংলাদেশ। এটার জন্য যে দক্ষতা, দেশ্বপ্রেম ও যে ভবিষ্যতে দুরদর্শী নেতৃত্ব দরকার তা আমারদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আজকে আমরা সেই জায়গায় গিয়েছি।

আমরা যে দুর্বারগতিতে এগিয়ে চলছি, অপ্রতিরুদ্ধ গতিতে এগিয়ে চলছি। তারই ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য আমাদের শিল্পকারখানাগুলো সমান তালে চলছে সে জন্যই আমরা পেরেছি।

ইফাদ অটোস লিমিটেডের গাড়ি সংযোজন এবং এসি, নন-এসি বাসের বডি ও ট্রাকের কেবিন প্রস্তুত কারখানা পরিদর্শন করে আধুনিক প্রযুক্তি সুবিধা সম্বলিত ইফাদ অটোস লিমিটেড কারখানার কাজ দেখে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ইফাদ গ্রুপ বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত একটি শিল্প প্রতিষ্ঠান।

বিভিন্ন মডেলের বাস-ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান বাজারজাত করার মাধ্যমে তারা পরিবহন খাতে বিশেষ অবদান রাখছে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ গাড়ি সংযোজনকারী দেশের গণ্ডি পেরিয়ে গাড়ি উৎপাদনকারী দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে ইফাদ গ্রুপের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ টিপু জানান, বেসরকারী উদ্যোগে বাংলাদেশে নব দিগন্তের সূচনা করেছে ইফাদ অটোস লিমিটেড। বেশ কয়েক বছর যাবত এই কারখানায় বিভিন্ন ধরনের গাড়ি সংযোজন করা হচ্ছে। চলতি বছরের শুরুর দিক থেকে বিলাসবহুল এসি, নন-এসি বাসের বডি তৈরী করা হচ্ছে।

তিনি জানান, বর্তমানে বিদেশ থেকে গাড়ি আমদানী করতে বেশ সময় লাগে। এই কারখানা চালু হওয়ার ফলে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী দ্রুততম সময়ে গাড়ি সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে।

ইফতেখার আহমেদ টিপু বলেন, বাংলাদেশে বিগত কয়েক বছরে ভারী যানবাহনের ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। চাহিদা বাড়ার সাথে সাথে আমদানীকৃত গাড়িতে আমদানী বাবদ বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হচ্ছে। বিষয়টি বিবেচনায় রেখে ইফাদ অটোস লিমিটেড বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় ও দেশে শিল্প বান্ধব অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে এই কারখানা স্থাপন করেছে।

গাড়ি সংযোজন এবং বডি তৈরীর ফলে একদিকে যেমন বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হচ্ছে। অন্যদিকে, দেশের অনেক ছোট ছোট বিশেষায়িত কারখানায় তাদের উৎপাদিত মানসম্পন্ন বিভিন্ন পণ্য এই সংযোজন কারখানায় সরবরাহের দ্বার উন্মোচন হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইফাদ অটোস লিমিটেড ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ধামরাইয়ে স্থাপন করেছে বেসরকারি উদ্যোগে দেশের সর্ববৃহৎ গাড়ী সংযোজন ও এসি, নন-এসি বাস-ট্রাকের কেবিন প্রস্তুত কারখানা।

বিশ্ব বিখ্যাত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভারতের অশোক লেল্যান্ডের কারিগরি সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত এই কারখানায় প্রতিবছর ১০ হাজারেরও বেশী গাড়ি সংযোজন করা হয়। একই সাথে কারখানাটিতে আধুনিক ও বিশ্বমানের এসি, নন-এসি লাক্সারী বাস ও ট্রাকের কেবিন তৈরী হচ্ছে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা-২০ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বেনজির আহমেদ এবং ইফাদ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ