আজ ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই মে, ২০২১ ইং

চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের সততা স্টোরে নিম্ন আয়ের মানুষের ভিড়

ইব্রাহীম খলীল – চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

 

নোবেল করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় কম দামে ১২টি পণ্য বিক্রি হচ্ছে। সততা নামে স্টোর খুলে এসব পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে নিজ হাতে পণ্য কিনে নিজ হাতেই টাকা কাউন্টারে রাখছেন ক্রেতারা। এতে নেই কোনো দোকানদার।

গত শুক্রবার চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নিচতলায় এই কার্যক্রম শুরু করেন জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান।
দূরের লোকজনকে বাড়ি বাড়ি এসব পণ্য পৌঁছে দেওয়ারও ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নারী–পুরুষ ভিন্ন ভিন্ন লাইনে নির্দিষ্ট দূরুত্ব বজায় রেখে গোল চিহ্ন দেওয়া সীমানায় দাঁড়িয়ে থেকে পণ্য সংগ্রহ করছেন। স্টোরে সাজিয়ে রাখা হয়েছে চাল, ডাল, তেল, পেঁয়াজ, লবণ, আটা, চিনি, আদা, রসুন, আলুসহ ১২টি পণ্যের প্যাকেট। এটি তদারকি করছেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সাবির্ক) এস এম জাকারিয়া। তাঁকে সহায়তা করছেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের কর্মচারীরা ও রেড ক্রিসেন্টের কর্মীরা।

এই কঠিন সময়ে কম মূল্যে এসব পণ্য কেনার সুযোগ পাওয়ায় উপকার হচ্ছে এলাকাবাসীর। এটি অব্যাহত থাকলে এলাকার সাধারণ লোকজনের অনেক সুবিধা হবে বলে জানান এলাকাবাসী।
জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান বলেন, ‘করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আমরা সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য এ ব্যবস্থা নিয়েছি, যাতে নিম্ন আয়ের লোকজনকে প্রয়োজনীয় খাদ্য ও পণ্য কিনতে বিড়ম্বনায় পড়তে না হয়। আমরা বাজারমূল্য থেকে অন্তত ১০ ভাগ কম মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় ১২টি খাদ্যপণ্য দিয়ে এই সততা স্টোর চালু করেছি। তিনি আরো জানান, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই সততা স্টোর খোলা থাকবে নিম্ন আয়ের লোকজনের জন্য।
প্রথম দিন ২০০ জন নাগরিক এই সেবা গ্রহণ করছে বলে জানান তিনি।
জেলা প্রশাসক আরো বলেন, অতি শীঘ্রই জেলার প্রতিটি উপজেলায় এভাবে সততা স্টোর চালু করা হচ্ছে। তবে আমি চাই সমাজের বিত্তবানেরা এগিয়ে আসুক মধ্যবিত্ত পরিবারের সহযোগিতায়। তাহলে এ ধরনের দূর্যোগ মোকাবিলা করা আমাদের দ্বারা সম্ভব হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ