আজ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

ফেসবুকের কল্যাণে হারিয়ে যাওয়া  লামিয়া ফিরে পেলো পরিবার 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

মা-বাবাকে খুঁজতে এসে রাস্তায় হারিয়ে যায় ছোট্ট শিশু লামিয়া(৩)। লামিয়াকে অপরিচিত দেখে এবং সন্দেহজনক গতিবিধির কারণে প্রশ্ন করা হয় তার পরিবার ও বাড়ির ঠিকানা সম্পর্কে। নিজের আর মা বাবার নাম ব্যতীত আর কিছু বলতে পারছিলনা সে। জানতে পেরে তার হারিয়ে যাওয়ার খবর ফেসবুকে পোস্ট করেন দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার শওকত আলী টিটু। ছোট্ট লামিয়াকে কেন্দ্র করে সেই ফেসবুকের পোস্ট পুরো সাভারে ভাইরাল হয়ে যায় মূহুর্তেই।

শনিবার(১০ জুলাই) সাভারের রেডিও কলোনী  বাসস্ট্যান্ড এলাকার টেস্টি ট্রিট নামক একটি দোকানের সামনে তাকে খুজে পাওয়া যায়। এরপর তাকে পার্শ্ববর্তী একটি কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজারের জিম্মায় রেখে তার সকল তথ্য ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করেন টিটু শওকত।

টিটু শওকত বলেন, আমি সকাল ১১ টার দিকে দেখি কুরিয়ার সার্ভিসের ম্যানেজার সহ কয়েকজন লোক মেয়েটার সাথে কথা বলছে এবং মেয়েটা কান্না করছে। ঘটনা কি জানতে চাইলে তারা বলে যে মেয়েটি হারিয়ে গিয়েছে। পরে আমি মেয়েটির সাথে কথা বলে মেয়েটির বর্তমান অবস্থান জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেই। প্রায় ঘন্টা দুয়েক পর মেয়েটির পরিবার সাভারের জামশিং এলাকার যেই বাসায় ভাড়া থাকতো সেই বাড়িওয়ালা সহ কয়েকজন এসে মেয়েটিকে নিয়ে যায়।

বাড়িওয়ালার মাধ্যমে জানা গেছে, লামিয়া’র মা সাভারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে গর্ভকালীন অবস্থায় ভর্তি এবং আজ সকালে তার আরেকটি কন্যা সন্তান হয়েছে। বর্তমান করোনাকালীন অবস্থা বিবেচনা করে লামিয়ার বাবা-মা লামিয়াকে বাড়িওয়ালার কাছে রেখে যায়। কিন্তু লামিয়া বাবা মাকে খুজতে সুযোগ বুঝে বাসা থেকে বের হয়ে যায় এবং হাঁটতে হাঁটতে সাভার রেডিওকলোনী বাসস্ট্যান্ডে এসে পৌছায়।

সেই ফেসবুক পোস্ট দেখতে পায় জামশিং এলাকার এক ভাড়াটিয়া। ততক্ষণে বাড়িওয়ালা ও পার্শ্ববর্তী লোকজন মেয়েটিকে খুঁজতে খুঁজতে নাজেহাল। পরে ফেসবুকে দেয়া তথ্য অনুযায়ী তারা মেয়েটিকে এসে নিয়ে যেতে চাইলে স্থানীয়রা মেয়ের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে নিশ্চিত হয়।

গণমাধ্যমকর্মী টিটু আগামীর সংবাদ  কে বলেন, আমি মেয়ের বাবার সাথে কথা বলেছি। তাদের ঘরে সকালেই আরেক কন্যা সন্তান এসেছে। তারা তাদের হারানো মেয়ে লামিয়াকে খুঁজে পেয়ে প্রচুর আনন্দিত। ফেসবুকের কল্যাণে মেয়েটিকে দ্রুত খুঁজে পেয়েছে তার পরিবার।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ