আজ ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ ইং

ভালোবাসার স্বীকৃতি পেতে প্রেমিকের বিয়ের কথা শুনে কনের বাড়িতে প্রেমিকা

দোহার নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 

 

প্রেমিকের বিয়ের কথা শুনে নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরায় কনের বাড়িতে হাজির এক প্রেমিকা । গত রোববার সন্ধ্যায় বান্দুরা এ ঘটনা ঘটে । প্রেমিকা দোহার উপজেলার মধ্য ধোয়াইর গ্রামের মোসারফের মেয়ে ।

জানা যায়, উপজেলার নয়াবাড়ি ইউনিয়নের উত্তর ধোয়াইর গ্রামের মো. সামাদের ছেলে মো. রশিদ দীর্ঘদিন যাবত পাশের গ্রামের মোসারফের মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক বজায় রাখে। দেশে থাকা অবস্থায় নানা সময়ে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে ভুক্তভোগীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরপর আবার বিদেশে চলে যায় রশিদ।

গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুবাই থেকে দেশে আসে । এরপর প্রেমিকাকে বিয়ে না করে নতুন করে বিয়ের জন্য মেয়ে দেখা শুরু করে রশিদ। পরে গত রোববার (২২মার্চ) নবাবগঞ্জ উপজেলার বান্দুরা এলাকায় ঘটা করে বিয়ের আয়োজন করা হয়। গতকাল সন্ধ্যায় গায়ে হলুদের আয়োজন করে রশিদ। বিয়ের কথা শুনে রশিদের হবু বৌয়ের বাড়িতে অবস্থান নেয় প্রেমিকা।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বলেন, রশিদ দীর্ঘ নয় বছর প্রেমের নামে আমার সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলে পরে বিদেশ চলে যায়। কিন্তু এখন রশিদ দেশে ফিরে আমাকে বিয়ে না করে অন্যত্র বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে শুনে আমি এখানে এসেছি। আমার সাথে যে প্রতারণা করা হয়েছে আমি এর বিচার চাই। এ বিষয়ে আমি থানায় একটি অভিযোগ করেছি।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শামীম আহমেদ হান্নান বলেন, ২১ ফেব্রুয়ারি আমরা বিষয়টি জেনে আমরা সামাজিকভাবে বসে রশিদের সাথে তার প্রেমের সর্ম্পকের কোনো প্রমান দিতে না পারায়, আমরা বিষয়টি মিমাংসা করতে পারিনি, তবে তাকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল তার কাছে যদি কোনো ধরনের প্রমাণাদি থাকে তাহলে রশিদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।
২৭ ফেব্রুয়ারিতে বসে মিমাংসার কথা থাকলেও মেয়ের বাবা মোসারফ চেয়ারম্যান শামীম আহম্মেদ হান্নানকে বিচারের কথা জিজ্ঞাসা করলে তিনি তাকে বলেন এইসবের আবার কিসের বিচার।
এ বিষয়টি তদন্ত কর্মকর্তা দোহার থানার এএসআই মো. ইব্রাহিম বলেন, এব্যাপারে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ