আজ ১৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

নবাবগঞ্জে কোয়ারেন্টাইন না মানায় ৩০ হাজার টাকা অর্থদন্ড

দোহার নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 

 

নবাবগঞ্জে কোয়ারেন্টাইন না মানায় প্রবাস ফেরত তিনজনকে অর্থদন্ড করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত এইচ.এম সালাউদ্দীন মনজু।
শনিবার (২১ মার্চ) দুপুরে ঢাকার নবাবগঞ্জের যন্ত্রাইলের ৮ নং ওয়ার্ড এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ.এম সালাউদ্দীন মনজু। বিদেশ ফেরত প্রবাসীরা বাড়ির বাহিরে বের হয়ে চলাফেরা করার কারনে যন্ত্রাইলের বালিডিওর এলাকার সজীত গমেজকে ৫ হাজার, বকুল গমেজকে ৫ হাজার ও বিরেশ গমেজকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ.এম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষার জন্য প্রথমে নিজেকে সচেতন হতে হবে৷ আপনার সচেতনতাই হবে রোগের প্রতিকার৷ সালাউদ্দীন মনজু আরও বলেন, করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে এমন আশঙ্কায় তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন রাখা হয়েছে৷ তারা তিনজনই সংক্রামক সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে৷

এমনকি যারা বিদেশ ফেরত প্রবাসী রয়েছেন তারা যেন তাদের নিজনিজ বাসায় অবস্থান করেন৷ যদি কেউ বাহিরে বের হয় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

নবাবগঞ্জে চলতি সপ্তাহে বিদেশ থেকে ফেরত এসেছে ২শত ২৫ জন প্রবাসী৷ তথ্যটি রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ