আজ ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং

হাতে নোট লেখা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মৌলভীবাজার জেলার চায়ের দেশ শ্রীমঙ্গলে মোছাঃ আসমা বেগম(৩০) নামের এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ। গত ০৭/০২/২০২১ ইং রোজ সোমবার সকালে উপজেলার আলিশারকুল এলাকার একটি বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের সময় আসমা বেগমের হাতে একটি নোট লেখা ছিল।

স্থানীয় লোকরা সিলেট নিউজ 24 কে জানায়, আসমা উপজেলার আলিশারকুল এলাকার মোঃ মতলিব মিয়ার মেয়ে বলে জানা যায়। তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেছেন,আসমা বেগমকে তার স্বামী পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন।
শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের রাজপাড়া এলাকার মৃত ছোবহান মিয়ার ছেলে মোঃ আব্দুল হালিমের(২২) এর সঙ্গে ৪ মাস পূর্বে বিয়ে হয় আসমা বেগমের। এর পূর্বে আসমা বেগমের আরেকটি বিয়ে হয়েছিল। সেই সংসার ভেঙে যায় এবং সেই সংসারে একটি ৬ বছরের কন্যাসন্তান রয়েছে। আব্দুল হালিম শ্রমিকের কাজ করেন। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ ছিল বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে আসমা বেগমের স্বামী আব্দুল হালিম জানান, প্রতিদিনের মতো শনিবার (গত ৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে তারা খাবার খেয়ে ঘুমাতে যান। রোববার সকাল সাড়ে ৬টায় ঘুম থেকে উঠে দেখেন তার স্ত্রী পাশে নেই। তিনি ঘরের মধ্যে স্ত্রীকে খুঁজতে থাকেন, হঠাৎ দেখেন ঘরের উপরে তীরের সঙ্গে মাফলার গলায় দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে আসমার দেহ। তিনি তখন চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে লাশ নিচে নামান। এ সময় আসমা বেগমের হাতে আত্মহত্যার নোট লেখা দেখা যায় বলে তিনি জানান।
তবে আসমা বেগমের বড় বোন আলেয়া বেগম দাবি করেন, আমার বোন আত্মহত্যা করার কথা নয়। তাদের স্বামী-স্ত্রীর মাঝে পারিবারিক ঝামেলা ছিল। আমাদের ধারণা আমার বোনকে তার স্বামী পরিকল্পিতভাবে খুন করেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মোঃ আব্দুছ ছালেক জানান, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা মনে হলেও হয়তো স্বামীর প্ররোচনায় আসমা বেগম আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। হাতের লেখার ঘটনার রহস্য উদঘাটনে এক্সপার্ট দিয়ে পরীক্ষা করা হবে এবং তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ