আজ ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং

ঘর-বাড়ি-শীত বস্ত্র না থাকায় মানবেতর জীনব যাপন করছেন আলপিনা বেগম

তাহিরপুর প্রতিনিধিঃ

নেই কোনো ঘর-বাড়ি, নেই কোনো সন্তানাদি, খাবারদাবারের কোনো নেই ব্যবস্থা অসহায়ত্বের মধ্যে দিনের পর দিন পার করছে
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের সুলেমানপুর গ্রামের আলপিনা বেগম। সুলেমানপুর সংলগ্ন মহালিয়া হাওরে দিনরাত পার করছে উক্ত মহিলা। খাবারের অভাবে না খেয়েই দিনরাত পোয়াচ্ছে। আবার প্রচন্ড শীতের মধ্যে শীত বস্ত্র ছাড়াই শীতের সাথে যোদ্ধ করে আসছে। খেয়ে না খেয়ে হাওরের মধ্যেই দিন কাটছে মহিলার। হাওরের মধ্যেই নিজের জন্য তৈরি করছে ভাত-মাছ ইত্যাদি। মাথায় কিছুটা সমস্যা থাকলেও তা উন্নত চিকিৎসা করলে সেরে যাবে বলছে স্থানীয়রা।

তবে স্থানীয়রা বলছে, তার মাথায় কিছুটা সমস্যা আছে। কিন্তু সে কারো সাথে খারাপ ব্যবাহার বা পাগলামি করে না। নিজেই তৈরি করে তার খাবার। হাওরের মাঠের মধ্যেই তার জীবন কাটাচ্ছে। চার পাশে হাজার হাজার শীতবস্ত্র বিতরন করা হলেও তার জন্য নেই একটি শীতবস্ত্র। শতশত ঘর-বাড়ি বিনামূল্য বিতরন করলেও কোনো কিছুই পায় নি সে। সুবিধা বঞ্চিত হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। স্থানীয় নেতা-কর্মী তার সাহায্যের জন্য হাত বাড়িয়ে দিলে হয়তো কিছুটা কষ্ট দূর হতো সেই মহিলার। শীতের রাত খুলা আকাশেঁর নিচে পার করা কত যে কঠিন তা একমাত্র সেই যানে। শীতবস্ত্র ছাড়াই রাতে ঘুমিয়ে পড়তে হয় মাটিতে। খাবারের কোনো ব্যবস্থা নেই। যার ফলে কোনো রকম জীবনের সাথে যুদ্ধ করে বেচে আছে আলপিনা। আমাদের দাবী সচেতন লোক বা যেকেউ যদি সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে তাকে উন্নত চিকিৎসা ও ঘর-বাড়ি শীতবস্ত্র দিয়ে সাহায্য করেন তাহলে আপনাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করবো।

তবে স্থানীয় ইউপি সদস্য বলছেন, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যদি কোনো সহযোগীতা করা যায় আমরা তা করবো।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ